৬ জেলায় যৌথ বাহিনীর অভিযান, আটক ১৫২

27

6 Districtবগুড়া, চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড, নাটোর, গাইবান্ধা, দিনাজপুর ও লালমনির-হাটের পাটগ্রামে যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের ১৫২ জনকে আটক করেছে। গত শনিবার রাত থেকে গতকাল রবিবার পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়। পরে আটককৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এদিকে, বরগুনা, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ, রংপুর, সাতক্ষীরার তালা, লালমনিরহাটের আদিতমারী ও কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পুলিশ অভিযান চালিয়ে জামায়াতের জ্যেষ্ঠ নেতাসহ ১৯ জনকে গ্রেফতার করেছে। আমাদের প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর:

সীতাকুন্ড (চট্টগ্রাম): যৌথ বাহিনী গত দু’দিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এক জামায়াত নেতাসহ ১৩ জনকে আটক করেছে। গত শনিবার সকালে মুরাদপুর ইউনিয়নের পেশকার পাড়ার নিজ বাড়ি থেকে ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারি রবিউল হোসেন সোহেলকে র্যাব আটক করে সীতাকুন্ড থানায় সোপর্দ করে। এদিকে শুক্র ও শনিবার রাতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে যৌথ বাহিনী অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াত-শিবির সন্দেহে ১২ জনকে আটক করে।

নাটোর: বড়াইগ্রাম ও গুরুদাস-পুরে গতকাল যৌথ বাহিনী অভিযান চালিয়ে বিএনপি ও শিবিরের ৯ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, আহম্মদপুর থেকে বিএনপি কর্মী চাটমোহর উপজেলার সমাজ গ্রামের শহিদুল ইসলাম, আহম্মদপুর এলাকার জাহিদ হাসান, জামালউদ্দিন, নজরুল ইসলাম, আব্দুর রহিম, সাইফুল ইসলাম, শিবির কর্মী দুই সহোদর মহিদুল ইসলাম ও মাহবুবুর রহমানকে আটক করা হয়। এছাড়া গুরুদাসপুর উপজেলার উদবাড়িয়া থেকে আব্দুর রহিম নামে অপর এক বিএনপি কর্মীকে আটক করেছে যৌথ বাহিনী।

গাইবান্ধা: গত শনিবার রাতে যৌথ বাহিনী অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের ১৮ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে। এর মধ্যে পলাশবাড়ী উপজেলায় ১০ জন, সাদুল্লাপুর উপজেলায় ৪ জন, সদর উপজেলায় ৩ জন ও সাঘাটা উপজেলা থেকে একজনকে আটক করে। পুলিশ গতকাল আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে জেলা হাজতে পাঠিয়েছে।

দিনাজপুর: যৌথ বাহিনী জেলার ১২টি উপজেলায় অভিযান চালিয়ে জামায়াত, শিবির, বিএনপি ও ছাত্রদলের ৪৯ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে। গত শনিবার মধ্যরাত থেকে গতকাল দুপুর পর্যন্ত একযোগে সবকটি জেলায় যৌথ বাহিনী অভিযান চালায়। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে কাহারোল উপজেলার কুখ্যাত গণি রাজা রয়েছে।

পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) : উপজেলার জোংড়া ইউনিয়নের মমিনপুর গ্রামে শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে জামায়াত-শিবিরের ৩ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে যৌথ বাহিনী। তারা হলেন জোংড়া ইউনিয়নের জামায়াত নেতা ফরহাদ হোসেন, একই গ্রামের শিবির কর্মী ফরহাদ রব্বি মিলন এবং লাবলু হোসেন।

বগুড়া: গতকাল দুপুরে শাজাহানপুর উপজেলায় অভিযান চালিয়ে যৌথ বাহিনী বগুড়া – ঢাকা মহাসড়কে নাশকতা ও পিকেটিংয়ের সঙ্গে জড়িত ৬০ জনকে আটক করেছে ।

বরগুনা (উত্তর): জেলা জামায়াতের নায়েবে আমির তৈয়বুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টায় বরগুনা শহরের কেজি স্কুল সড়কের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর): রামগঞ্জ থানা পুলিশ শনিবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার পানিয়ালার একটি বাড়ি থেকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুরের অভিযোগে নজরুল ইসলাম ও মোরশেদ আলম নামে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে।

রংপুর : নাশকতার অভিযোগে বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরের ১২ ক্যাডারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত শনিবার রাত থেকে গতকাল পর্যন্ত জেলার কাউনিয়া, পীরগাছা, মিঠাপুকুর উপজেলা এবং রংপুর মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো জামায়াত নেতা মুসলিম এইডের সুপারিনটেন্ডেট মোজাম্মেল হোসেন, মিলন মিয়া, ওমর মন্ডল, সাইফুল ইসলাম, আল আমিন, মোসলেম উদ্দিন, শফিকুল ইসলাম , সাহেব আলী, সেকেন্দার আলী, সাদেকুল ইসলাম, সাজ্জাদ হোসেন ও সেলিম মিয়া। গতকাল গ্রেফতারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

আদিতমারী (লালমনিরহাট) : উপজেলা শিবির সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম রানাকে গত শনিবার রাতে আটক করেছে থানা পুলিশ। মোটর সাইকেল পোড়ানো মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে গতকাল আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

তালা (সাতক্ষীরা) : গত শনিবার রাতে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় তালা উপজেলার রহিমাবাদ গ্রামে সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের মহাজোট প্রার্থী অ্যাডভোকেট মুস্তাফা লুত্ফুল্লার মাইক ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তালা উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে তালা থানায় মামলা করেছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে এক মহিলা জামায়াত কর্মীকে আটক করেছে। আটককৃতের নাম সখিনা খাতুন (২৭)। সে তালা উপজেলার রহিমাবাদ গ্রামের জামায়াত কর্মী মোনতাজ আলীর স্ত্রী।

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা): নাঙ্গলকোটে বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন ও স্বপন মিয়াজীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here