সিম যাচাই প্রক্রিয়ায় জড়িতদের সম্পর্কে তথ্য দিতে নির্দেশ

17

জনতার নিউজ

সিম যাচাই প্রক্রিয়ায় জড়িতদের সম্পর্কে তথ্য দিতে নির্দেশ

সরকার খুচরা বিক্রেতাদের ব্যাপারে এবং বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম যাচাই প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জমা দিতে সেলুলার ফোন অপারেটরগণের প্রতি নির্দেশ দিয়েছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘সরকার সফলভাবে সিম পুনঃনিবন্ধনের পর রাজধানী থেকে প্রিএকটিভেট সিম আটকের পর তাৎক্ষণিকভাবে এই সিদ্ধান্ত নেয়।’ তারা জানান, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের কাছে (বিটিআরসি) খুচরা বিক্রেতা ও তৃতীয় পক্ষের বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ তথ্য জমা দিতে অপারেটরগুলোর মুখ্য নিবার্হী কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন।

‘আমরা জনগণের সহায়তায় বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে ১১ কোটি ৬০ লাখ সিমের যাচাই সম্পন্ন করেছি।’ উল্লেখ করে তারানা হালিম বলেন, ‘কিছু সংখ্যক বিবেকবর্জিত লোকের জন্য আমাদের প্রচেষ্টা নস্যাৎ হতে পারে না। পুলিশ সম্প্রতি অন্য নামে সিম পুনঃনিবন্ধন করা ১৩টি প্রিএকটিভেটেড সিম আটক করেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় ৭ জন খুচরা বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘তারা বাজারে প্রিএকটিভেটেড সিম অন্য কারো নামে পুনঃনিবন্ধন করলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে সিম প্রতি ৫০ ডলার করে জরিমানা দিতে হবে। বাজারে কোন প্রিএকটিভেটেড সিম থাকবে না। যদি এ ধরনের কোন সিম পাওয়া যায় তবে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে অবশ্যই জরিমানা গুণতে হবে। কোন স্বার্থান্বেষি মহল অন্য উপায়ে গ্রামের সাধারণ লোকদের সিম ভিন্ননামে নিবন্ধন করতে পারে।’ তারানা হালিম সিম হস্তান্তর না করার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে গত ৩১ মে পর্যন্ত বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম পুনঃনিবন্ধনের জন্য প্রচারণা চালানো হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here