সশস্ত্র বাহিনীকে ইসির আনুষ্ঠানিক চিঠি

12

ecদশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিয়মিত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা দেয়া জন্য আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে মাঠে নামবে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা। নির্বাচনী কাজে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা দিতে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগকে আনুষ্ঠানিক চিঠি পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। কমিশনের যুগ্মসচিব জেসমিন টুলী স্বাক্ষরিত ওই চিঠি রবিবার সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারের কার্যালয়ে পাঠানো হয়। ইসির জারি করা ওই চিঠি ডাক ও বিশেষ বাহকের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তার কাছে পাঠানো হয়েছে।

নির্বাচনী দায়িত্ব পালনের জন্য নির্বাচন কমিশন ২৬ ডিসেম্বর থেকে সেনা মোতায়ন করার সিদ্ধান্ত নিলেও ইতিমধ্যেই শীতকালীন মহড়ায় মাঠ পর্যায়ে পৌঁছেছে সেনা সদস্যরা। জনস্বার্থে সেনাবাহিনী গুরুত্বপূর্ণ সড়কের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন। মহাসড়কে সেনাবাহিনীর টহলের ব্যাপারে দায়িত্বশীল কেউ মুখ খুলতে রাজি হননি। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সেনাবাহিনীর শীতকালীন মহড়ার একটি অংশ নাগরিক নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ।

সশস্ত্র বাহিনীকে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়, সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সশস্ত্র বাহিনী নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। গত ২০ ডিসেম্বর আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভায় ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন রাখার এই সিদ্ধান্ত হয় বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

সশস্ত্র বাহিনীর কার্যপরিধির বিষয়ে চিঠিতে জানানো হয়, ফৌজদারি কার্যবিধির ১৩০ ও ১৩১ ধারা এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা ‘বেসামরিক প্রশাসনের সহায়তার নির্দেশনা অনুযায়ী নির্বাচনের সময় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা তারা দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়াও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের কাজ হবে নির্বাচনী কাজে ম্যাজিস্ট্রেটের পরিচালনায় বেসামরিক প্রশাসনকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সহায়তা করা।

সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও মহানগর এলাকার কেন্দ্র স্থলে এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থান নেবেন এবং ‘স্ট্রাইকিং ফোর্স’ হিসাবে কাজ করবেন। রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে সমন্বয় করে উপজেলা ও থানা এলাকায় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করার কথা বলা হয়েছে। জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানে সহযোগিতার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, মহাসড়কে নিরাপদ যান চলাচল নিশ্চিত করে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কাজ করবেন সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here