রানা প্লাজার রেশমা বেগম

31

reshma

ছয় মাস আগে বাংলাদেশের সাভারে নয় তলা ভবন রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় এগারোশ’র বেশি শ্রমিক প্রাণ হারান, যাদের বেশিরভাগই ছিলেন তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিক।

বিশ্বের ইতিহাসে ভয়াবহতম শিল্প দুর্ঘটনার একটি হিসেবে চিহ্ণিত হয়েছে ভয়াবহ ওই ভবনধস।

ওই রানা প্লাজা ভবনে ছিল বেশ কয়েকটি পোশাক তৈরির কারখানা যার একটিতে কাজ করতেন পোশাক শ্রমিক রেশমা বেগম।

উদ্ধার তৎপরতার একেবারে শেষ পর্যায়ে ১৭ দিন পর ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে রেশমাকে জীবিত উদ্ধারের ঘটনা বিশ্বজুড়ে বিস্ময় ও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে।

রেশমা বেগম এখন ঢাকার পাঁচতারা হোটেল ওয়েস্টিনে কাজ করছেন।

কীভাবে কেটেছে রেশমার গত ছয় মাস এবং এখন কীভাবে দিন কাটাচ্ছেন তিনি সেসব নিয়ে কথা বলেছেন বিবিসি বাংলার আকবর হোসেনের সাথে।

তিনি বলেন বর্তমানে অনেক ভাল আছেন, সবার আদর ও ভাল বাসা পাচ্ছেন, তবে কষ্ট লাগে যখন অনেকে তার   উদ্ধারের ঘটনা নিয়ে সন্দেহ করেন,বা  প্রশ্ন তুলে।

কারন সে বাঁচার কথা ছিল না, আল্লাহর অশেষ রহমতে তিনি বেঁচে যান। বর্তমানে তার মা কে নিয়ে তিনি অনেক ভাল আছেন, তারা ৫ ভাই বোন, সবাইকে

নিয়ে তিনি অনেক ভাল আছেন। যারা তাকে উদ্ধার  করছে সে তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। তিনি আগামিতে আরো অনেক লেখা পড়া করতে চায়, অনেক বড় হতে চায়,

এখন হোটেলে ৯ ঘন্টা কাজ করছে আর কম্পিউটার  শিখছেন। তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here