মালাক্কা প্রণালিতে গিয়েছিল বিমানটি?

12

resize.php

মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানটি দেশটির পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত মালাক্কা প্রণালির দিকে গিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দেশটির সামরিক বাহিনীর রাডারে ওই এলাকাতেই বিমানটিকে শেষবার দেখা যায়। এর পরই বিমানটির সঙ্গে সিভিলিয়ান এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। খবর রয়টার্সের।

মালাক্কা প্রণালি মালয়েশিয়ার পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত। এটি বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ত শিপিং চ্যানেল।

মালয়েশিয়ার পত্রিকা ‘বেরিতা হারিয়ানে’ প্রকাশিত খবরে দেশটির বিমানবাহিনীর প্রধান রোদজালি দাউদ জানান, মালাক্কা প্রণালির প্রান্তে পুলাউ পেরাক দ্বীপের কাছে রাডারে শেষবারের মতো বিমানটির অস্তিত্ব ধরা পড়ে। সামরিক বাহিনীর রাডারে আরও দেখা গেছে, এ সময় বিমানটি আগের চেয়ে এক হাজার মিটার কম উচ্চতায় উড়ছিল।

গত শুক্রবার মধ্যরাতে ২৩৯ জন আরোহী নিয়ে কুয়ালালামপুর থেকে চীনের বেইজিংগামী ফ্লাইট এমএইচ৩৭০ নিখোঁজ হয়। ভিয়েতনামের দক্ষিণে জলসীমায় যাওয়ার পর রহস্যজনকভাবে বোয়িং ৭৭৭-২০০ইআর উড়োজাহাজটি নিখোঁজ হয়। এতে মোট ১৪টি দেশের ২৩৯ জন আরোহী ছিলেন। মালয়েশিয়ান এয়ারলাইনসের প্রকাশিত তালিকা থেকে দেখা যায়, উড়োজাহাজে সবচেয়ে বেশি ১৫৩ জন আরোহী ছিলেন চীনের। ২২টি বিমান ও ৪০টি বিভিন্ন ধরনের নৌযান তন্ন তন্ন করে খুঁজছে নিখোঁজ উড়োজাহাজটিকে। আজ চীনও ১০টি স্যাটেলাইট মোতায়েন করেছে।

এর আগেই কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, বিমানে দুজন সন্দেহভাজন যাত্রী ছিলেন। চুরি করা পাসপোর্ট নিয়ে ওই বিমানে আরোহী হয়েছিলেন তাঁরা। বিমানবন্দরের ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও ফুটেজ দেখে তাঁদের চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে পরে মালয়েশিয়ার পুলিশ দাবি করে, চুরি করা পাসপোর্ট নিয়ে মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানে ভ্রমণ করা দুজনের একজন ইরানি। তাঁর সঙ্গে কোনো সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর যোগসূত্র নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here