মানব পাচার এবং অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য চোরাচালান বন্ধে গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

12

pmপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানব পাচার এবং অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য চোরাচালান বন্ধে বাংলাদেশ ও মায়ানমারের মধ্যে যৌথ উদ্যোগ গ্রহণের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন।
তিনি বলেন, ‘কোন একক দেশের পক্ষে এ সব অপরাধ বন্ধ করা সম্ভব নয়। কাজেই এ লক্ষ অর্জনে তথ্য আদান-প্রদানসহ যৌথ উদ্যোগ গ্রহণের প্রয়োজন।’
মায়ানমার নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল জেইয়া কিয়াও হতিন থুরা থেট’র নেতৃত্বে সেদেশের নৌবাহিনীর ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল আজ সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলে তিনি এ আহ্বান জানান।
বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন যে তাঁর সরকার প্রতিবেশি দেশগুলোর জন্য ক্ষতিকর এমন কোন কর্মকাণ্ড চালাতে বাংলাদেশের ভূখণ্ড ব্যবহার করতে দেবে না।
মায়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা নিয়ে বিরোধের বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেন, শান্তিপূর্ণ উপায়ে এ সমস্যার সমাধান হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের এখন যৌথভাবে বঙ্গোপসাগরে নিরাপত্তা বিধান করতে হবে।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও জোরদারের মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যেকার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করা সম্ভব। তিনি বলেন, দু’দেশের মধ্যেকার সমপ্রীতি ও সহযোগিতামূলক সম্পর্ক বৃদ্ধি পেলে আমরা আরও এগিয়ে যেতে পারবো।
মায়ানমার নেৌবাহিনী প্রধান বলেন, বাংলাদেশ ও মায়ানমার যৌথভাবে চোরাচালান দমন এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করতে পারে। তিনি বলেন, আমরা অভিন্ন স্বার্থে কাজ করলে এ অঞ্চল ভবিষ্যতে আরও উন্নত হবে।
তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ও মায়ানমারের মধ্যে সমুদ যোগাযোগ এবং ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াবার যে কোন উদ্যোগকে তার দেশ স্বাগত জানাবে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল ও দূরদর্শী নেতৃত্বের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে জেইয়া কিয়াও হতিন থুরা আশা প্রকাশ করেন যে তাঁর গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রীকে তিনি মায়ানমার সশস্ত্র বাহিনী প্রধানের শুভেচ্ছাও পৌঁছে দেন।
অন্যান্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আব্দুস সোবহান সিকদার, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদিন এবং মায়ানমারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও বাংলাদেশে মায়ানমারের রাষ্ট্রদূত এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here