মহেশ্বরকাটিতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জামায়াত কর্মী গুলিবিদ্ধ

10

jamatসাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার মহেশ্বরকাটিতে পুলিশের সাথে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জামায়াতের এক কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আজ শুক্রবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ জামায়াত কর্মী কবীর আহম্মেদ সরদার (৪৭) আশাশুনি উপজেলার বাকড়া গ্রামের জামাল উদ্দিন সরদারের ছেলে।

আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবীব জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কবিরকে বৃহস্পতিবার বাকড়া এলাকা থেকে আটক করা হয়। এরপর শুক্রবার ভোরে তাকে নিয়ে পুলিশ উপজেলার মহেশ্বরকাটি অভিযানে যায়। এ সময় জামায়াত-শিবির কর্মীরা সংঘবদ্ধ হয়ে কবীরকে ছাড়িয়ে নেয়ার জন্য পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, পাটকেল নিক্ষেপ ও গুলি ছুড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে এ সময় পাল্টা ৯ রাউন্ড গুলি ছুড়ে। এ সময় গুলিবিদ্ধ হন কবীর আহম্মেদ। পুলিশ তাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়।

তিনি আরো জানান, আটক কবীর আহম্মদের বিরুদ্ধে আশাশুনি থানায় পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরসহ একাধিক মামলা রয়েছে ।

এদিকে, কবির আহম্মেদের স্বজনেরা জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে কবীরকে শহরের হালিমা হোটেলের সামনে থেকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ। পরে পুলিশ তাকে চোখ বেঁধে মহেশ্বরকাটিতে নিয়ে গিয়ে পায়ে গুলি করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here