ভাবমূর্তি ফেরানোর চেষ্টা করছেন খালেদা : হানিফ

13

hanifআওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, সাবেক বিরোধী দলের নেতা বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্য মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তিতে ভরপুর। তিনি বলেন, আজ বেগম জিয়ার সংবাদ সম্মেলনের ধরন দেখে মনে হয়েছে নির্বাচনের আগে তিনি নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণার সুযোগ পাননি এখন সুযোগ পেয়ে জনগণের সামনে তা তুলে ধরে ভাবমূর্তি ফেরানোর চেষ্টা করছেন।
মাহবুব-উল-আলম হানিফ আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর টিসিবি ভবনের নিজ কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্যের প্রতিবাদে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার বক্তব্য মিথ্যা তথ্যে ভরপুর। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন সংবিধান ও গণতন্ত্র রক্ষার জন্য হয়েছে। আমরা চেয়েছি বিএনপি নির্বাচনে আসুক। কিন্তু তারা নির্বাচনে না এসে ধ্বংসাত্মক নৈরাজ্য করেছে।
মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, উনি (খালেদা জিয়া) গণতন্ত্র চাননি। তিনি চেয়েছেন বিএনপি-জামায়াত সন্ত্রাসীদের দিয়ে সরকারের পতন ঘটাতে। সন্ত্রাস করে কখনো গণতন্ত্র ও শান্তি প্রতিষ্ঠা করা যায় না। সভ্য সমাজে যেগুলো নাশকতা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সেগুলো করে তিনি দেশে কোন গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন প্রশ্ন রেখে হানিফ বলেন, উনি যদি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী হন তাহলে যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ ত্যাগ করুক।
খালেদা জিয়া হারানো ভাবমূর্তি ফিরিয়ে আনতে চান মন্তব্য করে হানিফ বলেন, খালেদা জিয়া তাঁর ভুল বুঝতে পেরেছেন। আর এ জন্যই হয়তো তিনি হরতাল-অবরোধের মতো নৈরাজ্যমূলক কর্মসূচি দেননি। তবে সরকার বা জনগণ কোন কারণে বিশ্বাস করবে তারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করবে?
মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, উনি (খালেদা জিয়া) গণতন্ত্র চাননি। তিনি চেয়েছেন বিএনপি-জামায়াত সন্ত্রাসীদের দিয়ে সরকারের পতন ঘটাতে। সন্ত্রাস করে কখনো গণতন্ত্র ও শান্তি প্রতিষ্ঠা করা যায় না। তবে এখন ব্যর্থ হয়ে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে তাদের বোধোদয় হতে পারে।
সংলাপ প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পারে আসুন। সন্ত্রাস নৈরাজ্য পরিহার করলে, জামায়াতের সঙ্গ ছেড়ে এলে আলোচনা হবে। বিএনপি নেতাদের মুক্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিএনপি নেতারা যদি সন্ত্রাসের সঙ্গে সরাসরি জড়িত হয়, তবে সরকার কিভাবে তাদের মুক্তি দিবে। তাঁদের মুক্তি পেতে হলে আইনি প্রক্রিয়ায় পেতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here