বৃষ্টিতে ফের বিপত্তি

10

image_52870.bristiকয়েক দিন ঝলমলে আকাশের পর টানা দুই দিন টিপটিপ বৃষ্টি বাঁধ সেধেছে নগর জীবনে। যারা ‘শীত গেল’ ভেবে মোটা কাপড় করেছিলেন বাক্সবন্দি, তারা আবারও নিজেদের মুড়েছেন ভাড়ি কাপড়ে। কনকনে বাতাস আর কাদা-জলে ছিন্নমূল মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে সবচেয়ে বেশি।
আবহাওয়া অফিস বলছে, হঠাৎ বৃষ্টিতে ঢাকাসহ দেশের বেশির ভাগ অঞ্চলে দেখা দিয়েছে একই রকম বিরূপ পরিস্থিতি। মৌসুমী বায়ুর প্রভাবই এ জন্য দায়ী। আজকালও একই রকম গোমড়া আকাশ থাকার সম্ভাবনা। সেই সঙ্গে দেশের সব কয়টি বিভাগের বেশ কয়টি অঞ্চলে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতও হতে পারে। কোথাও হতে পারে বজ্রসহ বৃষ্টিপাত। মেঘ কেটে গেলে অনেকটাই উন্নতি ঘটবে আবহাওয়ার। রবিবার দেশের সর্বনম্নি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় রংপুর সদরে ১৩.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
বসন্ত উৎসব ও ভালোবাসা দিবসের ধকলের পর শনিবার ছুটির দিনে বছর পহেলা বৃষ্টিবিব্রত দিনটি অনেকটা যেন মেনেই নিয়েছিল নগরবাসী। শহরজুড়ে ছিল কোলাহল কম। কিন্তু রবিবার কর্মদিবসের প্রথমদিনেও একই বৈরী আবহাওয়ায় বেশ ঝক্কি পোহাতে হয় অফিস ও স্কুল-কলেজগামীদের। একে যানবাহনে চড়ার তীব্র প্রতিযোগিতা, সেখানে বৃষ্টি-সন্ত্রাসে শহরের বেশির ভাগ পথঘাট জলকাদায় মাখামাখি। পোশাক বাঁচিয়ে কর্মস্থলে পৌঁছানোই যেন দায়।
সবচেয়ে ভোগান্তি দেখা গেছে নিত্য আয়ের মানুষ ও ছিন্মমূল জনতার। ফুটপাথের হকারদের পর পর দুদিন বৃষ্টিজলে বেচাকেনা গেছে ভেস্তে। অমর একুশের গ্রন্থমেলায় ছিল ছাতামাথায় তারুণ্যের উৎসব। কোনো কিছুই দমাতে পারেনি উৎসবের মেজাজ। তবে সেখানেও দোকানিরা ছিলেন বইগুলোকে শুকনো রাখতে তৎপর। লিটল ম্যাগাজিন চত্বর অনেকটাই ছিল বৃষ্টিস্নাত।
গত সন্ধ্যায় আবহাওয়ার পূর্বাভাস বার্তায় বলা হয়, সোমবার ঢাকার বিভাগীয় অঞ্চলে আকাশ থাকবে অংশত মেঘলা। এই বিভাগের কয়েকটি অঞ্চলে রয়েছে বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সমূহ সম্ভাবনা। সেই সঙ্গে রাতের তাপমাত্রা কিছুটা হ্রাস পেতে পারে। রবিবার ঢাকা সদরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২২.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনম্নি তাপমাত্রা ছিল ১৬.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
এ ছাড়া চট্টগ্রাম, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের আবহাওয়ার পূর্বাভাসেও দেওয়া হয় অনুরূপ বার্তা। বিভাগওয়ারি রবিবার সর্বোচ্চ ও সর্বনম্নি তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে : চট্টগ্রামে ২৫.৫ ও ১৭.২, রাজশাহীতে ১৯.৬ ও ১৪.৮, রংপুরে ২১.৫ ও ১৩.০, খুলনায় ২০.০ ও ১৭.৫, বরিশালে ২১.৫ ও ১৬.৫ এবং সিলেটে ২১.৫ ও ১৫.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here