বিএনপি নেতারা ফোনে বলেন ‘ভাই একটু দেইখেন’: শামীম

16

shameemসাংসদ ও আওয়ামী লীগের নেতা শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির নেতাদের ‘পাতি’ নেতা বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেন, ‘জেলা বিএনপির অনেক নেতা আছেন, দিনের বেলায় বড় বড় কথা বলেন, কিন্তু রাতের বেলা আমাকে ফোন করে বলেন “ভাই একটু দেখিস”, “ভাই একটু দেইখেন।”’
নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় পৌর শহীদ মিনারে  সোমবার বিকেলে মহানগর এবং ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পেট্রলবোমা হামলার ঘটনার প্রতিবাদ, জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন।
বিএনপির ওই সব নেতাকে উদ্দেশে শামীম ওসমান বলেন, ‘আপনারা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আগুন দিয়ে ভুল করছেন। আপনাদের বাড়িঘর ঘেরাও করার ক্ষমতাও রাখে নারায়ণগঞ্জবাসী। আপনাদের নেত্রী খালেদা জিয়ার বাড়িও ঘেরাও করবে নারায়ণগঞ্জবাসী। নারায়ণগঞ্জে কোনো হত্যার ঘটনা ঘটলে বিএনপি-জামায়াত-শিবির নেতা-কর্মীদের বাড়ির ইট খুলে নিয়ে আসা হবে।’
এদিকে জেলা, মহানগর এবং ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রশাসনকে আলটিমেটামও দিয়েছেন শামীম ওসমান। তিনি প্রশাসনকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘মনে রাখতে হবে আমি কবরীর (নারায়ণগঞ্জ-৪) আসনের এমপি নই, আমি শামীম ওসমান। অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করতে হবে।’ প্রশাসন যদি তাদের গ্রেপ্তার না করে, তাহলে নিজেরাই হামলাকারীদের খুঁজে বের করে আনবেন বলে হুমকি দেন তিনি।

শামীম ওসমান তাঁর বক্তব্যে নাম উচ্চারণ না করে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত্ আইভীকে ‘কালী মা’ আখ্যায়িত করে বলেন, ‘যাঁরা ‘কালী মা’র কথায় উঠবস করছেন, ভবিষ্যতে এই ‘কালী মা’ ও তাঁদের ছাড় দেওয়া হবে না।

নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহার সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোহামঞ্চদ শহীদ বাদল, নগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত্ হোসেন সাজনু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাফায়েত আলম সানি প্রমুখ। প্রতিবাদ সভা শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here