বাঁশখালীর আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত

19

জনতার নিউজ

বাঁশখালীর আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত

বাঁশখালীর কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রবিরোধী আন্দোলন ১৫ দিনের জন্য স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার বিকাল ৫ টার দিকে গন্ডামারা হাদির পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ঐতিহাসিক মুজিব কিল্লায় সরকারের প্রতিনিধি ও আন্দোলনকারীদের যৌথ বৈঠকের পর কর্মসূচি স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

আন্দোলনকারীদের ওপর গুলির প্রতিবাদে এলাকাবাসী শনিবার সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছিল। বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে দাবী না মানলে পর দিন রবিবার সকাল ৮টায় কাফনের কাপড় পরে উপজেলা সদরে অবস্থান নেয়ার কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার বিকাল পাঁচটায় সরকারের পক্ষে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল্লাহ কবির লিটনের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মুজিব কিল্লার মাঠে আন্দোলনকারী জনগণ ও তাদের নেতা লেয়াকত আলী চেয়ারম্যানের সাথে উন্মুক্ত বৈঠকে বসেন। বৈঠকের পর ১৫ দিনের জন্য কর্মসূচি স্থগিত করার ঘোষণা দেন আন্দোলনকারীদের নেতা লেয়াকত আলী চেয়ারম্যান।

এ সময় লেয়াকত আলী জনসম্মুখে সরকারি প্রতিনিধি দলের উদ্দেশ্যে কয়েকটি দাবী উপস্থাপন করেন। তিনি ঘটনার জন্য বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন গঠনমিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, আটককৃতদের মুক্তি দাবী, হতাহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ প্রদান এবং পরিবেশ বিধ্বংসী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প বন্ধ ঘোষণার দাবি উত্থাপন করেন।

দাবীর প্রতি একাত্মতা ঘোষণা করে আবদুল্লাহ কবির লিটন পুলিশের হাতে আটককৃতদের আগামী তিন দিনের মধ্যে মুক্তি ও হয়রানি বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। আগামী ১৫ দিন পর্যন্ত এস আলম গ্রুপের কার্যক্রমও বন্ধ থাকার কথা জানান আওয়ামী লীগ নেতা।

১৫ দিন পর পরিবেশ বিজ্ঞানী, স্থানীয়  জনসাধারণ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের একত্রিত করে প্রস্তাবিত কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পটি পরিবেশ বান্ধব হবে কিনা জনসম্মুখে তা নিয়ে একটি সমন্বয় সভার ঘোষণা দেয়া হয়। ওই সভায় আলোচনা সাপেক্ষে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মাণ করা বা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here