ববি হাজ্জাজকে জোর করে যুক্তরাজ্যে পাঠানোর অভিযোগ

10

hm-ershad-bobby-hajjaj1

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের বিশেষ উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজ ও তাঁর পরিবারের তিন সদস্যকে জোর করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের বিশেষ উপদেষ্টা ববি হাজ্জাজরে বিদেশে পাঠিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার ববি নিজেই এই অভিযোগ করে বলেছেন, চাপের মুখে তিনি দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। তবে র‌্যাব দাবি করেছে, এ বিষয়ে তাদের কিছু জানা নেই।
ববি হাজ্জাজ  বলেন, তাঁকে ২০ ঘণ্টার বেশি সময় আটকে রাখা হয়েছে। সব বিবৃতি প্রত্যাহার করে আড়ালে যেতে বলা হয়েছে। তা না হলে সরকারের রোষানলের মুখোমুখি হওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছে। আর এ সবই করা হয়েছে ভোটের আগেই সংখ্যাগরিষ্ঠ প্রার্থীর বিজয়ী হওয়ার একটি নির্বাচনের সমালোচনা করার জন্য।’
এরশাদ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করলেও দৃশ্যমান কোনো কারণ ছাড়াই তা গ্রহণ করা হয়নি দাবি করে ববি হাজ্জাজ বলেন, ‘এ নির্বাচন প্রহসনের। এটা জনগণের মুখে চপেটাঘাত।’
এদিকে জাতীয় পার্টি রিসার্চ অ্যান্ড স্ট্রাটেজি উইংয়ের (জেপিআরএসডব্লিউ) কার্যক্রম স্থগিত করেছেন ববি হাজ্জাজ। ব্যক্তিগত সহকারীর মাধ্যমে আজ দুপুরে এক ঘোষণায় তিনি এ তথ্য জানান।
এরশাদের এই বিশেষ উপদেষ্টা বলেন, ‘জেপিআরএসডব্লিউ সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক এবং পেশাদার গবেষণা ও কৌশল নির্ধারণী সংস্থা হিসেবে এক বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করেছে। জাতীয় পার্টি ও এর সম্মানিত চেয়ারম্যান মহোদয়ের সামনে সামাজিক ও রাজনৈতিক ইস্যুতে নির্মোহভাবে পরিচালিত বিভিন্ন গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন এবং সমাজের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরাটাই ছিল এর একমাত্র কাজ।’ সেখানে যাঁরা কাজ করতেন তাঁরা সবাই পেশাদার ও অরাজনৈতিক ব্যক্তি ছিলেন বলেও মন্তব্য করে ববি।

ববি হাজ্জাজ জাতীয় পার্টির রিসার্চ অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক উইংয়ের প্রধান এবং এইচ এম এরশাদের বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে এরশাদকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিয়ে যাওয়ার পর শুক্রবার এক বিবৃতিতে ববি বলেছিলেন, এরশাদ তাঁকে মুখপাত্রের দায়িত্ব দিয়েছেন। শনিবারও মুখপাত্র হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে এরশাদের নির্বাচনে অংশ না নেওয়া এবং বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য দেন তিনি।

গত শনিবার তাঁর পরিবারের একটি সূত্র জানায়, হাজ্জাজকে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে র‌্যাবের পক্ষ থেকে তখন এ বিষয়টি কেউ নিশ্চিত করেননি।

শনিবার বিকেল চারটায় র‌্যাব-১-এর কার্যালয় থেকে ববি হাজ্জাজকে দেখা করতে বলা হয়। এরপর তিনি বিকেল পাঁচটায় এরশাদের পক্ষ হয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। পরে আবারও তাঁকে র‌্যাব কার্যালয়ে ডেকে পাঠানো হয়। তাঁকে সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে শনিবার রাতে ওই সূত্রটি দাবি করেছিল।

রোববার সকালে ববির পরিবারের একটি সূত্র দাবি করে, ববিকে আটক করেছে র‌্যাব। সে সময় র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল জিয়াউল আহসান  জানিয়ে ছিলেন, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ববি হাজ্জাজকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাঁকে র‌্যাব আটক করেছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে তখনও দাবি করা হয়। রোববার সন্ধ্যায় ববির পরিবারের সূত্রটি ববিকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here