বঙ্গভবনের ফটকে ২৫ মিনিট অপেক্ষায় ছিলেন খালেদা জিয়া

11

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য ‘নির্ধারিত’ সময়ের আগেই পৌঁছে যাওয়ায় বঙ্গভবনের সামনে প্রায় ২৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হয়েছে বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়াকে। এসময় তিনি গাড়িতেই বসেছিলেন। উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তারা সাংবাদিকদের জানান, বিরোধী দলীয় নেতা নিজে থেকেই গাড়িতে বসে ছিলেন।

নির্বাচনকে সামনে রেখে মন্ত্রিসভা পুনর্গঠনের পরদিন, গতকাল মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করতে যান খালেদা জিয়া। ১৮ দলীয় জোটের ১৯ জন নেতাকে নিয়ে গুলশানের বাড়ি থেকে বিকাল ৫টায় রওনা হন তিনি। পৌনে এক ঘণ্টা পর বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহর বঙ্গভবনের সামনে পৌঁছায়। ওই সময় তিনি তার গাড়িতে বসে থাকলেও অন্য নেতারা বঙ্গভবনের ভেতরে চলে যান। পরে সোয়া ৬টার দিকে বঙ্গভবনে প্রবেশ করেন খালেদা জিয়া।

বঙ্গভবনের সামনে দায়িত্ব পালনরত পুলিশের উপ-কমিশনার মো. আশরাফুজ্জামান উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, বিরোধীদলীয় নেতার সঙ্গে রাষ্ট্রপতির সাক্ষাতের সময় ছিল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়। নির্ধারিত সময়ের আধা ঘণ্টা আগেই তিনি বঙ্গভবন এলাকায় এসে পৌঁছান। এখানে এসে তিনি নিজ থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন। তার প্রবেশে আমাদের পক্ষ থেকে কোনো বাধা ছিল না।

খালেদা জিয়া বঙ্গভবন এলাকায় পৌঁছানোর পর বিএনপির কিছু নেতা-কর্মীকে দৈনিক বাংলা মোড় থেকে রাজউক ভবনের সামনে স্লোগান দিতে দেখা যায়। পরে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়। প্রসঙ্গত, গত ২৪ এপ্রিল আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব নেয়ার পর তার সঙ্গে বঙ্গভবনে এটিই বিরোধীদলীয় নেতার প্রথম সাক্ষাত্।

প্রতিনিধি দলে যারা ছিলেন

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকে বিএনপি ও ১৮ দলের ২০ সদস্যের প্রতিনিধ দলের নেতৃত্ব দেন জোট নেত্রী খালেদা জিয়া। এতে বিএনপি নেতাদের মধ্যে ছিলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আ. স. ম হান্নান শাহ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান। জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির একেএম নাজির আহমদ, এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, বিজেপির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিভ রহমান পার্থ, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ নেজামী, খেলাফত মজলিশের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ইসহাক, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, এনপিপি চেয়ারম্যান শেখ শওকত হোসেন নিলু, এনডিপি চেয়ারম্যান গোলাম মুর্তজা, ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মুস্তাফিজুর রহমান ইরান প্রতিনিধ দলে ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here