ফ্রান্সে বঙ্গবন্ধুর নামে স্কয়ার হচ্ছে

32

Nurul Wahidনুরুল ওয়াহিদ,   প্যারিস: ফ্রান্স থেকেfrance

 

 

 

 

ফ্রান্সের পর্যটননগরী পারেলুমনিয়াল সিটিতে হতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু স্কয়ার। সেই সাথে সেখানে পাথরে খুদাই করে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন করা হবে। বিদেশের মাটিতে এই প্রথম বঙ্গবন্ধুর নামে স্কয়ার করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে পারেলুমনিয়াল মিউনুসুপালিটি, যা এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ হাতে এই স্কয়ারের উদ্বোধন করলেই রচিত হবে আরেক ইতিহাসের। আর এ নিয়ে ফ্রান্স প্রবাসী বাঙালি কমিউনিটিতে বইছে আনন্দের বন্যা। সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, ফ্রান্স-বাংলাদেশ চেম্বার অব ইকোনমির সভাপতি কাজী এনায়েতুল্লাহ ২০১১ সালের প্রথম দিকে পারেলূমনিয়ালের সিটি মেয়র জন মার্কনেমকে বাংলাদেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য, শিল্পসংস্কৃতি এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনাবলী তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুর নামে একটি সড়ক কিংবা স্কয়ারের নামকরণের জন্য প্রস্তাব করেন। মেয়র জন মার্কনেম বিষয়টি আমলে নিয়ে সিটি কাউন্সিলে বিষয়টি উত্তাপন করলে বঙ্গবন্ধু স্কয়ার স্থাপন বিলটি সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। পরবর্তীতে এ বিষয়টি ২০১১ সালের ২০ ডিসেম্বর ফ্রান্স পার্লামেন্টে মেয়র জন মার্কনেম সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের উদ্যোক্তা কাজী এনায়েত উল্লাহকে সাথে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্টানিকভাবে বিষয়টি প্রকাশ করেন। যার স্মারক নং ৩৬০-সিএবিএম। ফ্রান্স পার্লামেন্টে বিষয়টি সিদ্ধান্ত হওয়ার পর পরবর্তীতে কাজী এনায়েত উল্লাহর সাথে মেয়র জন মার্কনেম এর দফায় দফায়আনুসাঙ্গিক কার্যক্রম এগিয়ে যেতে থাকে।

 

BS

কাজী এনায়েত উল্লাহ গত ফেব্রুয়ারি মাসে ফরাসি সাংবাদিক ফিলিপস আলফন্সিকে সাথে নিয়ে ঢাকায় আসেন। এসময় তার প্রযোজিত বাংলাদেশর মুক্তিযোদ্ধ চলাকালীন সময়ের ভিডিও ফুটেজ নিয়ে প্রfমাণ্যচিত্র ‘একটি পতাকার জন্ম’জাতীয় জাদুঘরে পদর্শন করেন। সেই সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করেন তারা। তখন কাজী এনায়েত উল্লাহ প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধরী ও সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী ও আসাদুজ্জামান নুর বিষয়টিতে বিশেষ আগ্রহ প্রকাশ করে সরকারের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। এদিকে, গত ২৯ এপ্রিল মঙ্গলবার বাংলাদেশ সরকারের নির্দেশে ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশ সরকারের রাষ্ট্রদূত এম শহিদুল ইসলাম সরেজমিনে পারেলেমনিয়াল শহর পরিদর্শন করেন। সেখানে তিনি পারেলেমনিয়াল এর সিটি মেয়র জনমার্কনেমের সাথে সাক্ষাত করে পরবর্তী পদক্ষেপের ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করেন। ৩০ এপ্রিল বুধবার পারেলেমনিয়ালের সিটি মেয়র জনমার্কনেম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপন ও বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের স্থান নির্ধারনের জন্য ফ্রান্স বাংলাদেশ চেম্বার অফ ইকোনমির সভাপতি কাজী এনায়েত উল্লাহকে আমন্ত্রণ জানান। ওইদিন কাজী এনায়েত উল্লাহ ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নিয়ে পারেলেমনিয়াল শহরে যান। এসময় মেয়র প্রতিনিধি দল নিয়ে শহরের কয়েকটি উল্লেখ্যযোগ্য স্থান সরেজমিনে ঘুরে দেখান। এসময় শহরের প্রাণকেন্দ্র একাদশ শতাব্দীতে নির্মিত বাজিলিকের পার্শ্বে সবুজ শ্যামল মনোরম এক পরিবেশে বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের স্থান নির্ধারণ ও সেখানে ভাস্কর্য স্থাপনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়। পরে মেয়র তার অফিস কক্ষে ভাস্কর্য স্থাপন ও বঙ্গবন্ধু স্কয়ার উদ্বোধন করার জন্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়ে একটি আমন্ত্রণপত্র তুলে দেন প্রতিনিধি দলের প্রধান কাজী এনায়েত উল্লাহর হাতে। এসময় উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল একাত্তরের ইউরোপের বিশেষ প্রতিনিধি সাংবাদিক নুরুল ওয়াহিদ, বাংলাদেশ বিজনেস কলসাল্টিং এর এক্সিকিউটিভ কামাল মিয়া, বাংলাভিশনের ফ্রান্স প্রতিনিধি ফয়সাল আহমদ দীপ, ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক এনায়েত সোহেল। এ ব্যাপারে ফ্রান্স বাংলাদেশ চেম্বার অফ ইকোনমির সভাপতি কাজী এনায়েত উল্লাহ জানান, বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে বিদেশের মাটিতে এই প্রথম ভাস্কর্য স্থাপন ও স্কয়ারের নামকরনের মাধ্যমে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস, শিল্প–সাহিত্য, কৃষ্টি-আরো সমৃদ্ধি লাভ করবে। তিনি জানান, ফ্রান্সের মাটিতে বাংলাদেশের ইতিহাসের সাথে যাদের সম্পৃক্ততা রয়েছে তাদের স্মরণে তার কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সার্বিক বিষয়ে মেয়র জনমার্কনেম জানান, ফ্রান্সের মাটিতে বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপন ও স্কয়ার নামকরণের উদ্যোগ নিতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। বাংলাদেশের ভাষা আন্দোলন ও স্বাধীনতা সংগ্রাম পৃথিবীর বুকে একটি বৃহৎ উদাহরণ। এই মর্যাদা বাঙ্গালি জাতিকে যেমন অনুপ্রাণিত করে তেমনি সারাবিশ্বের পাশাপাশি আমাদেরকেও অনুপ্রাণিত করেছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here