ফখরুলসহ বিএনপির তিন নেতা ফের কারাগারে

13

Fakrulগাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও ককটেল নিক্ষেপের অভিযোগে রমনা ও শাহবাগ থানায় দায়ের করা পৃথক মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও ঢাকা মহানগর কমিটির সদস্য সচিব আবদুস সালামের জামিন আবেদন না-মঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। গতকাল রবিবার ঢাকার মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ আদনান এ আদেশ দেন।

এদিকে নেতাদের কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে আজ সোমবার রাজধানীসহ সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। গতকাল দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তাত্ক্ষণিক সাংবাদিক সম্মেলনে দলের যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

দলীয়সূত্র জানায়, রমনা থানার একটি মামলায় মির্জা ফখরুল এবং একই থানার তিনটি মামলায় ও শাহবাগ থানার একটি মামলায় মির্জা আব্বাস ও অপর দুটি মামলায় আবদুস সালাম গতকাল আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। ইতিপূর্বে ওই মামলাগুলোতে তারা হাইকোর্ট থেকে জামিনে ছিলেন। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে গত ৯ মার্চ আপিল বিভাগ হাইকোর্টের অন্তবর্তীকালীন জামিনের আদেশ বাতিল করেন।

গতকাল উভয়পক্ষের শুনানি শেষে মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ আদনান বলেন, যেহেতু এসব মামলায় হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ আপিল বিভাগ বাতিল করেছে সেহেতু আমি জামিন আবেদন না-মঞ্জুর করব। পরে তিনি জামিন আবেদন নাকচ করে লিখিত আদেশ দেন। আদেশে কারাগারে তাদের প্রথম শ্রেণির মর্যাদা ও কারাবিধি অনুযায়ী চিকিত্সা সেবা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। দুপুরে তিন নেতাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে বিএনপির তিন নেতার জামিনের আবেদন নাকচ হওয়ার পর শতাধিক আইনজীবী কোর্ট প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় তারা সরকারের বিরুদ্ধে দফায় দফায় শ্লোগান দেন।

আজ সারাদেশে বিক্ষোভ:সাংবাদিক সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই বিএনপি নেতাদের কারাগারে পাঠিয়েছে। তিনি জানান, এর প্রতিবাদে আজ ঢাকায় থানায়-থানায় এবং সারাদেশে জেলা-উপজেলা ও মহানগরীতে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। তিনি বলেন, দেশ, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার পক্ষে কথা বলায় তাদের বিরুদ্ধে এই নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে বর্তমান অবৈধ সরকারের এই মহাপরিকল্পনা কখনোই টিকবে না। দেশে কারো সত্য বলার অধিকার নেই বলেও অভিযোগ করেন রিজভী।

ফখরুলের মুক্তি দাবি কাজী জাফরের :মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, মির্জা আব্বাস ও আব্দুস সালামের মুক্তি চেয়েছেন জাতীয় পার্টি (জাফর) চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমেদ। গতকাল রবিবার এক বিবৃতিতে তিনি বিএনপি আহূত আজকের বিক্ষোভ কর্মসূচিকে সমর্থন দিয়ে তা পালনে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

ড. মোশাররফের মুক্তি দাবি: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের অবিলম্বে মুক্তি ও তার বিরুদ্ধে দায়ের করা ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহার দাবি করেছে কুমিল্লা (উত্তর) জেলা, দাউদকান্দি ও মেঘনা উপজেলা জাসাস। শনিবার এক যুক্ত বিবৃতিতে অবিলম্বে তাকে মুক্তি দেয়া না হলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধসহ কঠোর কর্মসূচি দেয়ার হুমকি দিয়েছেন সংগঠনটির নেতারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here