নোয়াখালীতে যথাযোগ্য মর্যদায় উদযাপন করা হয়েছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২৬ শে মার্চ।

23

nkনাসির দ্রুবতারা নোয়খালী প্রতিনিধিঃ জনতার নিউজ
নোয়াখালীতে যথাযোগ্য মর্যদায় উদযাপন করা হয়েছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২৬ শে মার্চ। দিবসের প্রথম প্রহরে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সূচনা করেন এএসপি সদর সার্কেল, আরআই পুলিশ লাইন, ওসি সুধারাম, প্রধান শিক্ষক জিলা স্কুল। জেলা মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিঃ জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, জেলা পুলিশ সুপার, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, মাইজদী শহর আ’লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, মহিলা আওয়ামীলীগ এর সভানেত্রী নিলুফা মমিন ও সাধারন সম্পাদক রেনু চৌধুরী, জেলা যুবলীগ বাবু নেতা ইমন ভট্ট, একরামুল হক বিপ্লব, বাংলাদেশ মেডিকেল এস্যোসিয়েশন নোয়াখালী শাখা, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ নোয়াখালী শাখার সাধারন সম্পাদক সাত্তার ফরায়েজী ,বঙ্গবদ্ধু গবেষনা ও স্মৃতি পরিষদ এর কেন্দ্রীয় সদস্য নাছির ধ্র“বতারা ও জেলা সাধারন সম্পাদক সাহেদ, সহ-সভাপতি বিটুল, বঙ্গবদ্ধু ছাত্র পরিষদ এর আহবায়ক আরাফাত, সাংবাদিক অহিদ উদ্দিন মুকুল, এ্যাডভোকেট মীর মোশারেফ হোসেন মীরন, সম্পাদক আমিরুল ইসলাম হারুন ও জেলা প্রশাসনের পুষ্পস্তবক অর্পণ কমিটির অন্যতম সদস্য দৈনিক মানবজমিন এর স্টাফ রিপোর্টার নাসির উদ্দিন বাদল। এরপর একে একে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, যুদ্ধপরাধ বিচার মঞ্চ জেলা শাখা , নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গণজাগরণ মঞ্চ জেলা শাখা, নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ শিক্ষক সমিতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ শাখা, জাতীয় পার্টি-জেপি, জাতীয় পার্টি-এরশাদ, সহ শিক্ষা ও সামাজিক সংগঠন মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এদিকে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে নোয়াখালী জিলা স্কুল মাঠে দিবসের শুভ সূচনা করা হয়। সূর্য দয়ের সাথে সাথে জেলার সকল সরকারী-বেসরকারী অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, স্কুল-কলেজে উত্তোলন করা হয় জাতীয় পতাকা। সকাল ৮টায় শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিক ভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন সহ মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, আনসার-বিডিপি, বিএনসিসি, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, কারারক্ষী, বাংলাদেশ স্কাউটস, রোভার স্কাউট, গার্লস গাইড, স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান, শিশু কিশোর সংগঠন কুচকাওয়াজ ও শরীর চর্চা প্রদর্শন করে। অপরদিকে “এঁরহহবংং ইড়ড়শ ড়ভ ডড়ৎষফ জবপড়ৎফ” এ বাংলাদেশের নাম সংযোজন করতে সর্বস্ত্ররের জনগণের অংশ গ্রহনে সমাবেত কন্ঠে সকাল ১১টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। জাতীয় সংগীত শেষে জেলাবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান। এর আগে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের জন্য সকাল থেকে সকল সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও সর্বস্ত্ররের জনতা শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে একত্রিত হয়। জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতার চেতনায় জাগ্রত হল নোয়াখালীবাসী। দুপুর ১২টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ, যুদ্ধাহত, খেতাবপ্রাপ্ত, প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবার বর্গকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এছাড়া বাদ জহুর জাতির শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করে জেলার সকল মসজিদ, মন্দির, গির্জা, প্যাগোডাসহ অন্যন্য ধর্মীয় উপসনালয় এ বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা করা হয়। দিবসটি উদ্যাপনে জেলা প্রশাসন ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন প্রীতি ফুলবল ম্যাচ আলোকসজ্যা, ভ্রাম্যমান চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here