দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিযুক্ত ডাক্তারদের সুবিধা বাড়ানো হবে : প্রধানমন্ত্রী –

11

pmপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিযুক্ত ডাক্তারদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করবে। তিনি স্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যশিক্ষা খাতে উন্নয়নের জন্য সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘শুধু ব্যবসার কথা চিন্তা করে নয়, আপনাদের মানুষকে সেবা প্রদানের মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে’।
প্রধানমন্ত্রী দেশের স্বাস্থ্য খাতের অত্যাশ্চর্য সফলতার পেছনে বেসরকারি খাতের ইতিবাচক ভূমিকা রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন।
প্রধানমন্ত্রী কাল সকালে তাঁর কার্যালয়ে জাতীয় স্বাস্থ্য কাউন্সিলের সঙ্গে এক বৈঠকে সভাপতির ভাষণ দিচ্ছিলেন। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
মেডিক্যাল কলেজগুলো ও মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান উন্নয়নে প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে শেখ হাসিনা বলেন, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে আরো দুটি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার আয়ুর্বেদীয়, ইউনানী ও হোমিওপ্যাথিক শিক্ষাকে যুগোপযোগী করার পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, তাঁর সরকার নার্স ও স্বাস্থ্য প্রযুক্তিকর্মীদের শিক্ষার ওপর গুরুত্ব আরাপ করেছে এবং সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডাক্তারদের পাশাপাশি শিক্ষিত নার্স ও স্বাস্থ্য প্রযুক্তিকর্মীর সংখ্যাও বৃদ্ধি করা হবে। তিনি বলেন, তাঁর সরকার নারী ও শিশুদের স্বাস্থ্য চিকিৎসা সুবিধা সুনিশ্চিত করার ওপরও গুরুত্ব আরোপ করেছেন।
স্বাস্থ্য খাতে তাঁর পূর্ববর্তী সরকারের পাঁচ বছরের সাফল্যের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।
বৈঠকে অন্যদের মধ্যে জাতীয় অধ্যাপক ডা এম আর খান, জাতীয় অধ্যাপক ডা. শায়লা খাতুন, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, পরিকল্পনামন্ত্রী এ এইচ এম মোস্তফা কামাল, রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, বিএমএ সভাপতি অধ্যাপক ডা. মাহমুদ হাসান, সাবেক বিএমএ সভাপতি ডা. রশিদ-ই-মাহবুব ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত বক্তব্য দেন।
বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব আবদুস সোবহান সিকদার ও সংশ্লিষ্ট সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।
সভার শুরুতে স্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যশিক্ষা খাতের সার্বিক উন্নয়নের ওপর পাওয়ার পয়েন্টে একটি উপস্থাপনা পরিবেশিত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here