দেশজুড়ে তাণ্ডব নিহত পাঁচ

41

image_93246

প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর, রেলস্টেশন ও গাড়িতে আগুন, রেল ও সড়ক যোগাযোগ বিঘ্নিত, দুই পুলিশকে পিটিয়ে জখম, আওয়ামী লীগ নেতার হাত-পা কর্তন, অগ্নিদগ্ধ গার্মেন্টসকর্মী

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় দলীয় নেতা আব্দুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর আরো সহিংস হয়ে উঠেছে জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ। গত ২৪ ঘন্টায় দেশের বিভিন্ন স্থানে জামায়াত ও তাদের ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্র শিবিরের নেতা-কর্মীদের তাণ্ডবে কমপক্ষে ৫ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে সাতক্ষীরায় আওয়ামী লীগের দুই নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া নোয়াখালী, পিরোজপুর ও যশোরে সহিংসতায় তিন জন মারা গেছে। গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টা এক মিনিটে কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর থেকে গতকাল শুক্রবার রাত পর্যন্ত এই তাণ্ডব চলে।

এসময় বিভিন্ন জেলায় প্রতিপক্ষ নেতা-কর্মীদের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালায় জামায়াতসহ ১৮ দলের নেতা-কর্মীরা। সেনবাগে এক আওয়ামী লীগ নেতার হাত ও পা কেটে ফেলা ছাড়াও এক বিচারকের বাড়িতে ককটেল হামলা চালায় তারা। নারায়ণগঞ্জে দুই পুলিশকে পিটিয়ে জখম করে। জয়দেবপুর রেলস্টেশনে আগুন দিলে ট্রেন পরিচালনা কক্ষটি ভস্মীভূত হয়। এ সময় এক নারী গার্মেন্টকর্মী গুরুতর অগ্নিদগ্ধ হন। বগুড়ায় সওজ এর নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় অসংখ্য সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় অগ্নিসংযোগ ও শত শত গাছ কেটে সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তারা। এতে রেল ও সড়ক যোগাযোগ বিঘ্নিত হয়। এছাড়া শেরপুরে স্থানীয় এমপি হাবিবুর রহমানের বাসায় বোমা নিক্ষেপ করার খবর পাওয়া গেছে।

সাতক্ষীরা: জেলার কলারোয়ায় দুই আ’লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে জামায়াত শিবির কর্মীরা। কলারোয়া থানার ওসি শাহ-দারা খান ও নিহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে কলারোয়া উপজেলার গোপীনাথপুর এলাকার ৬নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমার আজুর বাড়ীতে হামলা চালায় জামায়াত শিবির। এ সময় আজু দৌড়ে পালাবার চেষ্টা করলে তাকে ধরে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এর পর রাত দুইটার দিকে একই উপজেলার যুবলীগ কর্মী জজমিয়ার সরসকাটি বাড়ীটি ঘেরাও করে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। জজমিয়া বেরিয়ে আসলে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে। ঘটনার পর সমস্ত রাস্তায় গাছের গুঁড়ি থাকায় ঘটনা স্থলে পৌঁছাতে পারেনি পুলিশ । সকালে লাশ দুটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়।

এদিকে রাতে দেবহাটা উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার এবং সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজিবর রহমানের বাড়িতে আগুন দিয়েছে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। এছাড়া জেলার বিভিন্ন স্থানে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বাড়ি ঘর ভাংচুর ও অগ্নি সংযোগের খবর খবর পাওয়া গেছে।

চৌমুহনী (নোয়াখালী): বেগমগঞ্জ-সোনাইমুড়ি সড়কের আফানিয়া নামক স্থানে বৃহস্পতিবার রাতে গাছের গুঁড়ি ফেলে অবরোধ সৃষ্টি করে জামায়াত-শিবির। রাত ১১টার দিকে র্যাব সদস্যরা গাছের গুঁড়ি সরানোর চেষ্টা করলে অবরোধকারীরা র্যাব সদস্যদের ওপর ইট পাটকেল ছুঁড়তে থাকে। এসময় র্যাব পাল্টা গুলি চালায়। এতে বেগমগঞ্জের মিরালিপুর গ্রামের খোরশেদ আলম (৪০) ও ইমাম উদ্দিন (৩০) গুলিবিদ্ধ হন। তাদের নোয়াখালী প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হলে খোরশেদ আলম চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা যান।

একই সময় বেগমগঞ্জের গোপালপুর বাজারে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা আগুন ধরিয়ে দিলে ১০/১২টি দোকান ভস্মীভূত হয়।

বেগমগঞ্জ-লক্ষ্মীপুর মহাসড়কের কেন্দুরবাগ থেকে বাংলাবাজার পর্যন্ত এবং বাংলাবাজার থেকে চন্দ্রগঞ্জ পর্যন্ত কয়েক শত গাছ কেটে সড়কে অবরোধ সৃষ্টি করে।

পিরোজপুর অফিস: বৃহস্পতিবার রাতে জিয়ানগরে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা ১৮ দলের মিছিলে গুলি চালালে জামায়াত সমর্থক একজন নিহত ও ছয়জন আহত হয়েছে। নিহত ব্যক্তির নাম শুকুর আলী (২২)। আহতরা হলেন, নাহিদ, শফিকুল, তৌহিদুল, সিদ্দিক ও লুত্ফর। স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোবারক আলী মিছিলে গুলি চালিয়েছেন বলে বিএনপি অভিযোগ করলেও তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ভান্ডারিয়ার ওসি (তদন্ত) মোঃ সুলতান মাহমুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শুক্কুর আলীর লাশ ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা যায়, রাত ১টার দিকে জামায়াত-বিএনপির কয়েকশ’ লোক ইন্দুরকানীর আউড়া পোলস্ট্যান্ডে এসে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থকদের ৭টি দোকান, একটি ক্লাব ঘর, ৮টি রিক্সা ও একটি টমটম ভাংচুর করে।

এসময় বাজারের দুর্গা মন্দিরের মূর্তিও ভাংচুর করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল লতিফ হাওলাদার অভিযোগ করেন, মিছিলটি ঘোষেরহাট বাজার অতিক্রম করার সময় পেছন থেকে পত্তাশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোবারক আলী হাওলাদার বন্দুক দিয়ে ৫ রাউন্ড গুলি করেন। তার গুলিতেই একজন নিহত ও ৬-৭ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার এসএম আক্তারুজ্জামান জানান, ভিকটিমদের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না পাওয়ায় সার্বিক তথ্য পুলিশের জানা নাই। ভান্ডারিয়ার পুলিশ স্থানীয় হাসপাতাল থেকে গুলিবিদ্ধ এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে। বন্দুকের ছররা গুলিতে তার মৃত্যু হয়েছে। এদিকে নিহত শুকুর আলীর পিতা সিদ্দিকুর রহমান হাওলাদার (৬০) জানান, ৬ মাস হয়েছে আমার ছেলে বিয়ে করেছে। দেড় মাস পর গত সোমবার সাগর থেকে মাছ ধরে বাড়ি এসেছিল সে।

যশোর : জেলার বাঘারপাড়ায় ট্রাকে আগুন দিতে গিয়ে ট্রাক চাপায় নিহত হয়েছেন আশরাফুল (২০) নামে এক জামায়াত কর্মী। শুক্রবার ভোরে উপজেলার বাঘারপাড়া-চাড়াভিটা সড়কের বোলতেঘাটা মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আশরাফুল বাঘারপাড়া উপজেলার মহিরন গ্রামের মকবুল দর্জির ছেলে। এ ঘটনার পর জামায়াত কর্মীরা ওই এলাকায় দুটি ট্রাকে আগুন দিয়েছে।

এদিকে ভোরে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের প্রায় ৫ কিলোমিটার সড়কের শতাধিক গাছ কেটে সড়ক অবরোধ করে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। মহাসড়কের মালঞ্চী থেকে নতুনহাট পর্যন্ত এসব গাছ কাটা হয়।

গাজীপুর:শুক্রবার সকালে জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশন স্টেশনের ট্রেন পরিচালনা কক্ষ (রিলে রুম) শিবিরের পেট্রোল বোমায় ভস্মীভূত হয়েছে। এতে ওই কক্ষের কম্পিউটারাইজড সিগন্যাল বোর্ড, টেলিফোন, কম্পিউটার, ফাইবার ক্যাবল, আসবাবপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পুড়ে গেছে। এসময় ট্রেনের জন্যে অপেক্ষারত যাত্রী পোশাক শ্রমিক শামসুন্নাহার (৩০) আগুনে দগ্ধ হয়েছেন। হামলাকারীদের লাঠির আঘাতে স্টেশন মাস্টার জিয়াউদ্দিন সরদার আহত হয়েছেন। ঘটনার পর থেকে ওই স্টেশন হয়ে ট্রেনচলাচল সাময়িক বন্ধ থাকে।

আগুনে দগ্ধ শামসুন্নাহারকে গাজীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি গাজীপুরের তিন সড়ক এলাকার ইন্টারমেক্স সোয়েটার কারখানার অপারেটর। তিনি বেতনের টাকা নিয়ে গ্রামের বাড়ি গফরগাঁও যাচ্ছিলেন। তার দুই পা, হাত ও মুখের কিছু অংশ পুড়ে গেছে।

স্টেশন মাস্টার জিয়া উদ্দিন সর্দার জানান, হামলার সময় তিনি পুলিশ বা রেলওয়ে নিরাপত্তারক্ষীদের কাউকে ঘটনাস্থলে দেখেন নি। আগুনে রিলে রুম ভস্মীভূত হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবে ট্রেন চলাচল আপাতত বন্ধ রয়েছে।

সিলেট :বিক্ষুব্ধ জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীরা বৃহসপতিবার রাতে মোগলাবাজার রেলস্টেশনে আগুন দেয়। একই সাথে তারা জালালাবাদ থানা কমপাউন্ডেও ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। একপর্যায়ে এই থানার আওতাধীন টুকেরবাজার এলাকার বিদ্যুত্ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় এবং একজন যুবলীগ নেতার স’মিলে ভাংচুর ও আগুন ধরিয়ে দেয়। দক্ষিণ সুরমার শ্রীরামপুর চৌরাস্তা থেকে হেতিমগঞ্জ চৌরাস্তা পর্যন্ত তিন কিলোমিটার রাস্তায় তারা গাছ ফেলে অবরোধের সৃষ্টি করে। জালালাবাদ থানার ওসি গৌছুল আলম ঘটনায় সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বগুড়া: জেলার সাথে সারাদেশের সড়ক ও রেলপথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। গতকাল দুপুরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় ও আকিজ গ্রুপের ডিপোতে। সকাল থেকে দুই দফা শহরতলীর এরুলিয়া ও চারমাথা এলাকায় জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে। এছাড়া শেরপুরে এক আওয়ামী লীগ নেতার মার্কেটে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। শাজাহানপুরের ফটকি ব্রিজে দুটি গাড়িতে আগুন দিয়েছে তারা ।

গতকাল বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার দীঘলকান্দির মাঝিপাড়া এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক কেটে ফেলে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেন। এছাড়া শেরপুর উপজেলার মহিপুর থেকে শাজাহানপুর উপজেলার নয়মাইল পর্যন্ত মহাসড়কের দুই পাশের গাছ কেটে অবরোধ করে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা।

বোনারপাড়া-সান্তাহার রেলপথে বগুড়ার সাবগ্রামসহ একাধিক স্থানে রেললাইনের ওপরে গাছ কেটে ফেলে রাখে তারা। এছাড়া কাহালু উপজেলার পাঁচপীর এলাকায় রেল লাইন উপড়ে ফেলে এবং গাবতলীতে বেশ কিছু স্প্যাণ্ডেল ক্লিপ খুলে ফেলে।

নারায়ণগঞ্জ:ফতুল্লার পঞ্চবটিতে শুক্রবার সকালে তাণ্ডব চালিয়েছে শিবিরের লোকজন। এসময় তারা ৪টি গাড়িতে আগুন ও আরো অন্তত ২০টি যানবাহন ভাংচুর করে। ওই সময়ে শিবিরের লোকজন ট্রাফিক পুলিশের ২ সদস্যকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। এরা হলেন হাকির হোসেন ও রফিক। শিবিরের তাণ্ডবের কারণে প্রায় পৌনে ১ ঘণ্টা ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ সড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল।

পরশুরাম: শুক্রবার দুপুরে ফেনীতে জামায়াত-শিবির কর্মীরা শহরের এসএসকে সড়কস্থ বিটিসিএল অফিস, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যাপক গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এসময় মহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার রাতে দুর্বৃত্তরা মার্কেন্টাইল ব্যাংক, বাংলাদেশ বিদ্যুত্ উন্নয়ন বোর্ড, ইসলামী ব্যাংক, গাজী হোটেলে হামলা চালায় ও একটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করে। রাতে ফেনী পল্লীবিদ্যুত্ অফিসের সামনে পুলিশের সাথে শিবির কর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এছাড়া ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপাল ও রামপুর রাস্তার মাথা নামক স্থানে রাতে ৭টি ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ৩টি প্রাইভেট কারে অগ্নিসংযোগসহ ১৫/২০টি গাড়ি ভাংচুর করা হয়।

নোয়াখালী: সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহেরের বাড়িতে বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা। গতকাল শুক্রবার দুপুরে সোনাইমুড়ি উপজেলার সোনাপুর বাজারে সাহদাত ও রাজন নামের দুই শিবির কর্মীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার রাতে দুর্বৃত্তরা সদর উপজেলা ও রামগতি সড়কের ছাইয়াখালীর বেইলি ব্রিজের প্লেট খুলে ফেলে। এতে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

সেনবাগ:আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নের কাবিলপুর গ্রামের বাড়িতে বৃহস্পতিবার রাতে বোমা হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে রাত পৌনে ১টার দিকে। এসময় ঘটনাস্থলে মোতায়েনকৃত পুলিশ সদস্য ও দুর্বৃত্তদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে রাতে সেনবাগ পৌর শহরে ছাত্রলীগ নেতা আফসার হোসেনকে (২৬) পিটিয়ে আহত করে জামায়াত কর্মীরা। পরে মুক্তিযোদ্ধা হাসমত উল্যা চৌধুরীর (৭৮) বাড়িতে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাংচুর করে এবং তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এছাড়া গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে পৌর শহরের ফাতেমা টি স্টলের সামনে উপজেলার কাদরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ডা. আবদুল হাইয়ের (৪৭) উপর হামলা চালিয়ে তার ডান হাতের কব্জি ও ডান পা কেটে দিয়েছে তারা।

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জ সদর, বেলকুচি ও উল্লাপাড়াতে অন্তত ৩০টি বাড়িঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। বিভিন্ন এলাকার শত শত গাছ কেটে মহাসড়কে ফেলে ও সিরাজগঞ্জ-বগুড়া আঞ্চলিক সড়কের শিয়ালকোল ইউনিয়নের বেইলী ব্রীজের ৪টি পাটাতন এবং নলকায় বেইলী ব্রীজের ৪টি পাটাতন তুলে যান চলাচলের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে জামায়াত কর্মীরা। এতে শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সিরাজগঞ্জের সঙ্গে বগুড়া, নাটোর, উল্লাপাড়া, শাহজাদপুরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে।

নীলফামারী: বৃহস্পতিবার ১০টার পরে সদর উপজেলার লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শ্যাম চরনের বাড়িতে আগুন দেয় স্থানীয় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। একই সময়ে লক্ষ্মীচাপ বাজারের প্রায় ৫০টি দোকানে হামলা চালিয়ে লাখ লাখ টাকার মালামাল লুট করে তারা।

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম): উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুরের পাশাপাশি নাপোড়ায় বাঁশখালী প্রধান সড়কের বেইলি ব্রিজটির পাটাতন খুলে ফেলা হয়েছে। কালীপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবদুল গফুরের ফার্মেসী ও ইউপি সদস্য সাইরাজ উদ্দিনের তেলের দোকানসহ ১০-১২টি দোকান আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম): চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের লোহাগাড়া অংশের উপর শত শত গাছ কেটে সড়ক অবরোধ করে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীর বাড়ি ভাঙচুর করে। রাত ৮টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল শুরু হয়নি।

দিনাজপুর: বৃহস্পতিবার রাতে জামায়াত-শিবির নেতা-কর্মীরা চিরিরবন্দর উপজেলার ভূষিরবন্দরে দিনাজপুর জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি ভবানী শংকর আগরওয়ালার বাসভবনে অগ্নিসংযোগ করে। তারা ৫টি বাস, একটি পাজেরো জীপ, একটি পিক-আপ ও ২টি মোটরসাইকেল জ্বালিয়ে দেয়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সুনীল কুমার সাহার বাড়ী ও মিলেও হামলা চালায়। তারা চিরিরবন্দরের কাঁকড়া ব্রিজের পাটাতন খুলে দিনাজপুর চিরিরবন্দর সড়ক যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে।

ফুলবাড়ি (দিনাজপুর): দিনাজপুর-৬ আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আজিজুল হক চৌধুরীর পেট্রোল পাম্পে অগ্নিসংযোগসহ বাসভবন ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টায় ফুলবাড়ির পার্শ্ববর্তী নবাবগঞ্জের ভাদুরিয়া বাজার সংলগ্ন চৌধুরী ফিলিং স্টেশনে এ হামলা চালানো হয়।

রাজশাহী :বৃহস্পতিবার রাতভর নগরীজুড়ে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি’র বাড়িতে পেট্রোল বোমা হামলা চালায়। এনিয়ে পুলিশের সঙ্গে তাদের দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাতেই নগরীর ২৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তারের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় শিবির কর্মীরা। এসময় তারা একটি মোটরসাইকেলও পুড়িয়ে দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে শিবির কর্মীদের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় ১০ জন আহত হয়।

গাজীপুর:কোনাবাড়িতে শুক্রবার রাতে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা তিনটি গাড়িতে আগুন দিয়েছে। এসময় তারা মহাসড়কে তাণ্ডব চালিয়ে অর্ধশতাধিক যানবাহন ভাংচুর করে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মনির (২৮) নামে এক শিবির কর্মীকে আটক করা হয়েছে।

রংপুর :বৃহস্পতিবার রাতে জামায়াত-শিবির ক্যাডাররা রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দের গেট থেকে শঠিবাড়ী পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার এবং রাণীপুকুর থেকে ভেন্ডাবাড়ি ১৭ কিলোমিটার এলাকায় সড়কের দু’পাশের গাছ কেটে অবরোধ গড়ে তোলে। উপজেলার জায়গীরহাট এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে ফেলে অগ্নিসংযোগ করে। এর ফলে বৃহস্পতিবার রাত থেকে ওই এলাকার বিদ্যুত্ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এছাড়া রংপুর-সুন্দরগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের হাউদারপাড় এলাকায় ৩ ফিট সড়ক কেটে দিলে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। নগরীর পুরাতন বেতারপাড়া এলাকায় যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের অফিসে আগুন ধরিয়ে দেয় জামায়াত-শিবিরের ক্যাডাররা। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভায়। এদিকে পীরগাছা উপজেলার হাউদারপাড় নামক স্থানে ১টি এ্যাম্বুলেন্স, ২টি পিকআপ ও ১টি মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দিয়েছে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডাররা। উপজেলার তাম্বুলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেছে তারা।

সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম): বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে গাছ ফেলে অবরোধ সৃষ্টি, সড়ক কেটে ও ব্রিজ ভেঙ্গে দেয়ার চেষ্টা চালালে পুলিশ ও বিজিবি’র সাথে জামায়াত শিবির কর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। একই রাতে উপজেলার ছদাহা রোয়াজর পাড়া এলাকায় সাবেক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হুমাইয়ুনের বাড়িতে হামলা চালায় জামায়াত শিবির।

কুমিল্লা:জেলা পরিষদের প্রশাসক ও কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মো. ওমর ফারুকের নগরীর ঠাকুরপাড়াস্থ বাড়িতে বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে ২টি পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ, গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নগরীর টমছমব্রীজ এলাকায় কমিউনিটি পুলিশ বক্স এবং ভোরে জেলার চৌদ্দগ্রামের বাতিশা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ও মিয়াবাজারের শুয়ারখিল সড়কে ‘মুজিব সেনা ক্লাব’ আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

পাবনা:এক আওয়ামী লীগে নেতার বাড়িসহ চারটি বাড়ি ভাঙচুর ও একটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা ছাড়াও জামায়াত সমর্থকরা পাবনা-ঢাকা মহাসড়কের ৬ টি যানবাহনে আগুন দিয়েছে।

গাইবান্ধা:গতকাল বিকালে জামায়াত-শিবির হামলা চালিয়ে সাদুল্লাপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহারিয়া খাঁন বিপ্লব ও বণিক সমিতির সভাপতি শফিউল ইসলাম স্বপনকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে। হামলাকারীরা এসময় তাদের দু’টি মোটর সাইকেল আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে। দুপুরে জেলার পলাশ বাড়িতে পুলিশ ও বিজিবির সঙ্গে ১৮ দলের নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়েছে ১৮ দলের ৩ কর্মী। বৃহস্পতিবার রাতে পলাশবাড়ি সড়ক ও জনপথের (সওজ) একটি পাজেরো জীপসহ ২টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং সুন্দরগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে আগুন দেয় জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীরা। একইসময়ে জেলার গোবিন্দগঞ্জে ও সুন্দরগঞ্জে আ’লীগ নেতার কয়েকটি দোকান ও বাড়ি ভাংচুর করেছে ১৮ দলের নেতা-কর্মীরা। এছাড়া জেলার বিভিন্ন এলাকায় সড়ক কেটে এবং রাস্তার ধারের বড় গাছ কেটে সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তারা।

লালমনিরহাট: জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দর এলাকায় দুটি ওষুধের দোকান, একটি কাপড়, একটি ডেকোরেটর ও একটি মুদির দোকানসহ স্থানীয় বুড়িমারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুসা আলীর বাড়িতে ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করেছে জামায়াত কর্মীরা।

জয়পুরহাট: জামায়াত-শিবির কর্মীরা সদর উপজেলার ভাদসা-দুর্গাদহ ও হিচমী-আমদই ইউনিয়নের বাইপাস সড়কের কিছু অংশ কেটে দেয়। এ সময় হিচমী বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ আমানের একটি মাইক্রোবাস ও গদি ঘর এবং জয়পুরহাট-আক্কেলপুর সড়কের পাইকরতলীতে একটি ট্রাক ও মোটর সাইকেলে আগুন দেয় তারা।

মহেশপুর (ঝিনাইদহ): উপজেলার সামন্তা বাজারে ও গ্রামে জামায়াত শিবির হামলা চালিয়ে ৪টি দোকানে আগুন, ৭টি বসতবাড়িও দু’টি বাস ভাংচুর করে লুটপাট করেছে।

হরিণাকুণ্ডু (ঝিনাইদহ): ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা সড়কের বৈডাঙ্গা বাজারের নিকটে শিবির ৬টি গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। সাগান্না ইউনিয়ন ও এর আশপাশের ২০টি গ্রামে ঘটনার পর থেকে প্রায় ১২ ঘণ্টা বিদ্যুত্ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল।

কমলনগর (লক্ষ্মীপুর): উপজেলা পরিষদের পাঁচটি অফিস, উপজেলা চেয়ারম্যানের বাংলো ভাংচুর ও রামগতি-লক্ষ্মীপুর সড়ক কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

ফকিরহাট (বাগেরহাট): দুর্বৃত্তরা মহাসড়কে সরকারি গাছ কেটে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্সসহ অর্ধশতাধিক যানবাহন ভাংচুর করেছে। এতে চালক গুরুতর আহত হয়েছে। নাম জিলানি শেখ (৩৭)।

হবিগঞ্জ: বাহুবল উপজেলার মিরপুর বাজারে আওয়ামী লীগ ও ১৮ দলীয় জোট নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধ উপজেলা যুবদল সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান নানুকে সংকটাপন্ন অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ছাতক (সুনামগঞ্জ):উপজেলায় একটি পুলিশ বক্স ভাংচুর করেছে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা।

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ):বৃহস্পতিবার রাতে জামায়াত বিএনপিসহ ১৮ দল শিবগঞ্জের রসুলপুর মোড় থেকে সোনামসজিদ পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ও রাস্তা খুঁড়ে যাতায়াত বন্ধ করে দেয়। সোনামসজিদ বালিয়াদিঘি বাজারে মহিলাদের দিয়ে বিজিবির উপর হামলার চেষ্টা করে। কানসাট বাজারের ৪টি দোকান, পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কমিশনার এমানীর বাড়িসহ কয়েকটি বাড়িতে ও ছত্রাজিতপুর বাজারের পেট্রোল পাম্পে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট করে। একই সময়ে মোবারকপুর ইউনিয়নের টিকরী বাজার ও গ্রামে ৮টি বাড়ি ও ৩০/৩৫টি দোকানে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করেছে তারা।

বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ):উপজেলা সদরে সোহাগ সিনেমা হলসহ ১৯টি বাড়ি ও দোকানে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। এছাড়া অর্ধশতাধিক বাড়িতে বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর):উপজেলার হরিপাড়া হাট, ডুগডুগিরহাট ও ঘোড়াঘাট বন্দরে ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটতরাজের ঘটনা ঘটেছে।

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ):উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগে পুড়ে গেছে মূল্যবান জিনিসপত্র ও ল্যান্ডফোন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে জ্বানালার কাঁচ ভেঙ্গে দুর্বৃত্তরা পেট্রোলের বোতল ছুঁড়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

কাউখালী (পিরোজপুর):কাউখালী-ভান্ডারিয়া সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা রাস্তায় গাছ ফেলে অবরোধ সৃষ্টি করে। ফলে কাউখালীর শিয়ালকাঠী চৌরাস্তা থেকে ভান্ডারিয়া পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া উপজেলার চৌরাস্তা, বেলতলা, তালুকদার হাটের দুই পাশের গাছ কেটে এবং ব্রিজের পাটাতন তুলে সড়ক অবরোধ করে তারা।

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর):উপজেলার ১নং রাজারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ও ৭নং পশ্চিম বড়কুল ইউনিয়নের ঝাকনি আওয়ামী লীগের কার্যালয় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে জামায়াত-শিবিরকর্মীরা।

অবরুদ্ধ পুলিশ, সংঘর্ষ

রাত আটটার দিকে  বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে মোকামতলা বন্দরের অদূরে পাকুড়তলা নামক স্থানে পুলিশের সাথে জামায়াত-শিবির ও এলাকাবাসীর ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় বিক্ষুব্ধ জামায়াত-শিবির কর্মীরা ১টি কোচ, ১টি পিক-আপ ও ১টি ট্রাকে আগুন ধরিয় দেয়। এছাড়া ভাংচুর করে আরো ২০টি যানবাহন। এক পর্যায় তারা পুলিশকে প্রায় ৩ ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। এ সময় গ্রামের মসজিদের মাইক থেকে গ্রামবাসীকে এগিয়ে আসতে বলা হলে শত শত নারী -পুরুষ লাঠিসোটা নিয়ে মহাসড়কে অবস্থান নেয়। পরে বগুড়া শহর থেকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ, র্যাব ও বিজিবি ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here