দাড়ি কেটেও রক্ষা হলো না রাকিবের

11

jmb Dসদ্য দাড়ি কাটার চিহ্ন ও ডান্ডাবেড়ির দাগ দেখে পুলিশের সন্দেহ হলে জেমএমবির জঙ্গি রাকিব হাসানকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ রবিবার দুপুর আড়াইটার দিকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে সখীপুর থানা পুলিশ।
দুপুর ২টার দিকে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে যাচ্ছিলেন রাকিব। তাঁর সঙ্গে ছিলেন রাসেল নামে আরো একজন যুবক। তল্লাশি চালানোর সময় এসআই শ্যামল দত্তের সন্দেহ হয় রাকিবকে দেখে। কারণ তাঁর মুখে ছিল সদ্য দাড়ি কাটার চিহ্ন। প্রিজনভ্যান থেকে পালানোর পরই দাড়ি কামিয়েছিলেন রাকিব। কিন্তু সময় কম থাকায় সম্ভবত দাড়ি কাটতে গিয়ে তার গাল কয়েক জায়গায় কেটে যায়। এ ছাড়া তাঁর থুঁতনির নিচে অল্প কিছু দাড়ি ছিল। সময় স্বল্পতার কারণে তিনি ঠিকমতো দাড়ি কাটতে পারেননি।
এসআই জানিয়েছেন, দাড়ি দেখে সন্দেহ হওয়ায় রাকিব হাসানকে আরো ভালো করে তল্লাশি করেন তিনি। এ সময় তিনি রাকিব হাসানের হাতে ও পায়ে ডান্ডাবেড়ির দাগ দেখতে পান। রাকিবের পায়ে নতুন স্যান্ডেল ছিল। কিন্তু পুলিশের চোখ এড়াতে পারেননি তিনি। এ সময় সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ রাকিবকে গ্রেপ্তার করে।
অন্যদিকে, ছিনিয়ে নেওয়া তিন আসামিকে ধরিয়ে দিতে প্রত্যেকের জন্য ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি আনিসুজ্জামান এক লাখ টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা করেছেন।
প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে তিন জেএমবি সদস্যকে ছিনতাই করার পর পুলিশ চিরুনি অভিযান শুরু করে। একপর্যায়ে জাকারিয়া নামের এক গাড়ি চালককে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরবর্তী সময়ে সখীপুর থেকে রাকিবকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পুলিশের সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়, ২৩ ফেব্রুয়ারি রবিবার বিকেলে টাঙ্গাইলের সখীপুর থেকে রাকিব হাসান নামের জেএমবি সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।
রাকিব হাসানের গ্রামের বাড়ি জামালপুরের মেলান্দহের বংশীবেল এলাকায়। তিনি জেএমবির শুরা সদস্য। তাঁর বিরুদ্ধে ৩০টি মামলা রয়েছে, এর মধ্যে একটিতে তিনি মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত হন। আরেকটি মামলায় তাঁর যাবজ্জীবন ও আরো একটি মামলায় তাঁর ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here