ঢাকার পাশে থাকতে চাইছে দিল্লী : আনন্দবাজার

13

anandbazaarনির্বাচনের পরই বাংলাদেশের আসল লড়াই শুরু হবে এমন মনে করছে নয়াদিল্লি এমন কথা জানিয়ে ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকা বলেছে, বিদেশিদের অনুমান, এই নির্বাচনের পরে সরকার গড়া মাত্রই পশ্চিমের বিভিন্ন দেশ এবং সংগঠন প্রবল চাপ দেবে সরকারের উপর। সরকারকে অগণতান্ত্রিক অ্যাখ্যা দিয়ে ঢাকার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করাটাও অস্বাভাবিক নয়। এই প্রবল আন্তর্জাতিক চাপ প্রতিহত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাশেই থাকতে চাইছে নয়াদিল্লি। রবিবার পত্রিকার ‘ঢাকার পাশেই নয়াদিল্লি’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বল হয়, ভোট ঘোষণা হওয়ার সময় থেকেই আমেরিকার সঙ্গে ধারাবাহিক দৌত্য চালিয়ে এসেছে নয়াদিল্লি। কিন্তু জামায়াতে ইসলামিকে মূল স্রোতে প্রতিষ্ঠার কথা বলেছে আমেরিকা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন। নিরপেক্ষতার বদলে বিএনপি-ঘেঁষা অবস্থানই বরাবর নিয়ে এসেছে তারা। ভারতের পাল্টা যুক্তি, যাবতীয় মৌলবাদী এই জামায়াতকে সমাজের সর্বস্তরে ডালপালা ছড়ানোর সুযোগ দিলে বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষ চরিত্র ধ্বংস হবে। শুধু ঢাকা নয়, গোটা দক্ষিণ এশিয়ার নিরাপত্তা বড়সড় প্রশ্নের মুখে পড়বে। এমনিতেই এ বছর আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর পরিস্থিতি কোন দিকে মোড় নেয় সেই আশঙ্কায় কাঁটা হয়ে রয়েছে গোটা অঞ্চল। তার উপর বাংলাদেশের মতো একটি রাষ্ট্র ইসলামিক উগ্রপন্থার হাতে চলে গেলে পরিস্থিতি যে ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে এটাই পশ্চিম বিশ্বকে বোঝাতে চাইছে নয়াদিল্লি। দ্বিপাক্ষিক ক্ষেত্রে সাউথ ব্লকের আশঙ্কা, বিএনপি-জামাত ক্ষমতায় এলে শুধু হিন্দুই নয়, সে দেশ থেকে ধর্মনিরপেক্ষ মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের ঢল নামবে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতের দিকে। ফলে বাংলাদেশের নতুন এই সরকারকে আপাতত স্থিতিশীল রাখতে কূটনৈতিক দৌত্যের প্রক্রিয়া কাল (আজ সোমবার) থেকেই বাড়াচ্ছে দিল্লি।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, আমেরিকার সঙ্গে আলোচনার পাশাপাশি কমনওয়েলথ-এর মঞ্চকে কাজে লাগিয়েও হাসিনা সরকারের সমর্থনে স্বর তুলতে চায় ভারত। এই মুহূর্তে ‘কমনওয়েলথ মিনিস্টারিয়াল অ্যাকশন গ্রুপ’-এর সদস্য ভারত। বর্তমান নির্বাচনকে অগণতান্ত্রিক অ্যাখ্যা দিয়ে কমনওয়েলথভুক্ত কোনও দেশ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আর্থিক বা অন্য কোনও নিষেধাজ্ঞা জারির চেষ্টা করলে হস্তক্ষেপ করবে দিল্লি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here