জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ এবং জি এম কাদেরের প্রার্থিতা বহাল

12

Ershad Kader
লালমনিরহাট-১ (হাতীবান্ধা-পাটগ্রাম) আসনে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এবং লালমনিরহাট-৩ (সদর উপজেলা) আসনে এরশাদের ভাই জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদেরের প্রার্থিতা প্রত্যাহার হয়নি। এখনো তাঁরা ওই দুই আসনে বৈধ প্রার্থী হিসেবে বহাল আছেন বলে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় লালমনিরহাট রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ও জি এম কাদের যথাযথভাবে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আবেদন না করায় তা গ্রহণ বা মঞ্জুর করা হয়নি। এ কারণে তাঁরা দুজনসহ লালমনিরহাট জেলার তিনটি সংসদীয় আসনের সাতজন প্রার্থীকেই বৈধ প্রার্থী হিসেবে বহাল রাখা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, লালমনিরহাট-২ আসনে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগের একমাত্র প্রার্থী নুরুজ্জামান আহাম্মেদকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।

গত বুধবার বিকেল সোয়া চারটায় জাতীয় পার্টির রংপুর মহানগর শাখার সভাপতি ও দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা লালমনিরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফজলুল করিমের কাছে এইচ এম এরশাদ ও জি এম কাদেরের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আবেদনপত্র জমা দিয়েছিলেন।

লালমনিরহাটে তিনটি আসনের বৈধ প্রার্থীরা হলেন লালমনিরহাট-১ আসনে আওয়ামী লীগের মোতাহার হোসেন, জাতীয় পার্টির এইচ এম এরশাদ ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) ছাদেকুল ইসলাম। লালমনিরহাট-২ আসনে আওয়ামী লীগের নুরুজ্জামান আহাম্মেদ, লালমনিরহাট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের আবু সালেহ মোহাম্মদ সাঈদ (দুলাল), জাতীয় পার্টির জি এম কাদের ও জাসদের মো. খোরশেদ আলম বৈধ প্রার্থী হিসেবে বহাল থাকলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here