ছুটি নিয়ে ক্যাম্পাস ছাড়লেন উপাচার্য আনোয়ার হোসেন

15

image_91150অবশেষে পাঁচ দিনের ছুটি নিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছেড়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সোয়া দুইটায় পুলিশ প্রহরায় তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে ক্যাম্পাসের বাসভবন ছেড়ে যান। এ সময় তার সঙ্গে স্ত্রী আয়েশা হোসেন, দুই নিরাপত্তা রক্ষী ও সহকারী প্রক্টর কাজী সাইফুল ইসলাম গাড়িতে ছিলেন।

উপাচার্য ক্যাম্পাস ছেড়ে যাওয়ার পর তার বাসভবনের সামনে থেকে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয় আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা-কর্মচারী ঐক্য ফোরাম। ঐক্য ফোরামের সদস্য সচিব অধ্যাপক কামরুল আহসান বলেন, ভিসির এ প্রস্থানে আমাদের প্রাথমিক বিজয় হয়েছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ক্যাম্পাস ত্যাগের আগে উপাচার্য আনোয়ার হোসেন উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক আফসার আহমেদকে পাঁচ দিনের জন্য ভারপ্রাপ্ত উপাচার্যের দায়িত্ব দিয়ে যান। উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক এমএ মতিন শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকায় এ দায়িত্ব তাকে দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার আবু বকর সিদ্দিক জানান, উপাচার্য পাঁচ দিনের ছুটি নিয়েছেন।

গতকাল রাতে অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন ছুটি নেয়ার কথা স্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ। যে কারণে কয়েকদিনের ছুটি নিয়েছি।’

গত সোমবার রাত থেকেই উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন ও উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে তার বাসভবন অবরোধ করে রেখেছিল শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা-কর্মচারী ঐক্য ফোরাম। বুধবার রাতে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদারের বাসায় হাতবোমা হামলার পরপরই ঐক্য ফোরাম এর ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। তখন ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ভিসিকে পদত্যাগের জন্য আধঘন্টা সময় বেধে দেয়। কিন্তু তিনি পদত্যাগ না করায় তার বাসভবনে ভাংচুর চালায় তারা। পরে ঐক্য ফোরাম উপাচার্যের সাথে দেখা করার জন্য বাসভবনের ভেতরে প্রবেশ করলেও তিনি দেখা করেননি।

ঢাকার জেলা প্রশাসক শেখ ইউসুফ হারুন বুধবার রাত ২টার দিকে ক্যাম্পাসে পৌঁছে শিক্ষকদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে আমরা উপাচার্যকে নিতে এসেছি, তিনি সকালে যেতে রাজি হয়েছেন।’

এদিকে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদার জানান, সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশেই তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। সাভার থানার নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান মোল্লা এবং সাভার সার্কেলের এএসপি রাসেল শেখের তত্ত্বাবধানে কয়েক দফা বৈঠক শেষে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়েন।

প্রশাসনিক ভবন অবরোধ চলবে :উপাচার্যের বাসভবনের অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হলেও প্রশাসনিক ভবনের অবরোধ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার দাবিতে তাদের এ কর্মসূচী অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন ঐক্য ফোরামের নেতারা।

পরিসংখ্যান বিভাগের মানববন্ধন:শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদারের বাসভবনে বোমা হামলার প্রতিবাদে গতকাল দুপুর বারোটার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে মানববন্ধন করেছে পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধন থেকে বোমা হামলার ঘটনায় জড়িত দুষ্কৃতিকারীদের অবিলম্বে চিহ্নিত করে বিচার দাবি করা হয়।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের পক্ষ থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের শুরুর দিকে ইংরেজী বিভাগের শিক্ষার্থী জুবায়ের আহমেদ নিহত হলে আন্দোলনে পদত্যাগ করেছিলেন তত্কালীন উপাচার্য অধ্যাপক শরীফ এনামুল কবির। পরে ১৭ মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক আনোয়ার হোসেনকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here