চট্টগ্রামে পুলিশের গুলিতে শ্রমিক নিহত

11

ctgচট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় আজ বৃহস্পতিবার পুলিশের গুলিতে পারভীন আক্তার (২০) নামের একজন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন পুলিশসহ ১৫ জন। উপজেলার কোরিয়ান ইপিজেডে (কেইপিজেড) শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে এ ঘটনা ঘটে।

অন্য ইপিজেডগুলোর সঙ্গে বেতন বৈষম্যের প্রতিবাদে বেলা ১১টার দিকে ইয়ং ওয়ানের পরিচালনাধীন কর্ণফুলী শুজ ইন্ডাট্রিজ লিমিটেডের প্রায় ১৪ হাজার শ্রমিক বিক্ষোভ করেন। এ সময় ওই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সকালে বেতন-বৈষম্যের প্রতিবাদে কেইপিজেড এলাকায় শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করেন। এ সময় পুলিশ তাঁদের বাধা দিলে সংঘর্ষ বাধে। একপর্যায়ে শ্রমিকেরা পুলিশের দুটি গাড়িসহ চারটি গাড়ি ভাঙচুর করেন ও ঝুট কাপড়ের একটি গুদামে আগুন ধরিয়ে দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি ছোড়ে পুলিশ। এতে পারভীন আক্তার নামের ওই শ্রমিক গুলিবিদ্ধ হন। আহত হন পুলিশসহ ১৫ জন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) জহিরুল ইসলাম বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পারভীন আক্তারকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিত্সক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত ব্যক্তিদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শিল্প পুলিশের পরিচালক তোফায়েল আহমেদ মিয়া বলেন, বেতন-বৈষম্যের প্রতিবাদে সকালে শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করেন। এ সময় বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের সংঘর্ষ বেধে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ গুলি ছোড়ে। শ্রমিকেরা পুলিশের ওপর হামলা চালালে তিন পুলিশসহ ১৫ জন আহত হন। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here