কথা বললেন না রওশন, দিনভর বৈঠক

15

52ac7d1db8454-ershad

সন্ধ্যা সাতটায় রওশন এরশাদ তাঁর দলের অবস্থান পরিষ্কার করবেন—এমন খবরে সংবাদকর্মীরা রওশন এরশাদের বাড়ির সামনে ভিড় জমালেও শেষ পর্যন্ত কথা বলেননি তিনি। সন্ধ্যা সাতটায় বাসভবনের সব আলো নিভিয়ে দেওয়া হয়। তাঁর একজন সহকারী জানান, রওশন অসুস্থ। কথা বলবেন না।

এ দিকে বিকেল পাঁচটার দিকে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের বিশেষ সহকারী ববি হাজ্জাজ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, দলে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের কোনো পদ নেই। দলের মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, এরশাদের ভাই ও প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদের ছাড়া কেউ দল সম্পর্কে কোনো বক্তব্য দিলে তা গ্রহণযোগ্য হবে না। এ ছাড়া ববি হাজ্জাজ বলেছেন, আপাতত এরশাদ তাঁকে মুখপাত্রের দায়িত্ব দিয়েছেন। এরশাদের সঙ্গে তাঁর টেলিফোনে কথাবার্তা হচ্ছে।

এর আগে বিকেল চারটার দিকে রওশন এরশাদের বাসা থেকে বের হয়ে দলটির দপ্তর সম্পাদক তাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, যাঁরা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি, তাঁরা লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে যাবেন। যাঁরা নির্বাচনে যাচ্ছেন তাঁরা কি দলের বিদ্রোহী অংশ, নির্বাচনে যাওয়ার ব্যাপারে এরশাদের সমর্থন আছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তাজুল জানান, তাঁরা বিদ্রোহী নন। তবে এরশাদের অবস্থান কী সে সম্পর্কে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। এ দিকে এরশাদের রাজনৈতিক মুখপাত্র ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ রওশনের বাসা থেকে বেরিয়ে প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, ‘নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। মহাসচিব ও ববি হাজ্জাজ যা বলবেন, উই উইল ফলো দেম।’

দিনভর বৈঠক, ধোঁয়াশা কাটছে না

সিএমএইচে এরশাদকে নিয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত দলের নেতা-কর্মীদের ভিড় ছিল বারিধারায় প্রেসিডেন্ট পার্কে। এখন নেতা-কর্মীরা ভিড় জমাচ্ছেন রওশন এরশাদের বাসভবনের সামনে। তবে তাঁরা রওশন এরশাদের দেখা পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন এই প্রতিবেদককে। বিএনপি ঘেঁষা বলে পরিচিত রওশন ‘ম্যারাথন’ বৈঠক করছেন দলটিতে আওয়ামী লীগপন্থী বলে বিবেচিত নেতা জিয়াউদ্দিন বাবলু ও আনিসুল ইসলাম মাহমুদের সঙ্গে। কাজী ফিরোজ রশীদকে কখনো মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, আবার কখনো রওশন এরশাদের বাসভবনে দেখা গেছে। মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারকে একবারও রওশন এরশাদের বাসায় আসতে দেখা যায়নি। তবে তিনি আজ সারা দিন সাংবাদিকদের ফোন ধরেননি। নেতা-কর্মীরাও তাঁর খোঁজ পাননি। শেষ পর্যন্ত রওশন এরশাদ কিছু বলবেন কি না, সে নিয়ে অস্পষ্টতা কাটেনি আজও। জাতীয় পার্টির সূত্রগুলো বলছে, মহাসচিব ও জি এম কাদের গ্রেপ্তার আতঙ্কে ভুগছেন।

রুহুল আমিন হাওলাদার গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তাঁর অনেক কথা আছে। তিনি পরে সেসব কথা বলবেন।

গত কয়েক দিন রওশন এরশাদের বাসভবনকে কেন্দ্র করে যেমন নেতা-কর্মীরা ভিড় জমিয়েছেন, তেমনি গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরও আনাগোনা বেড়েছে। নির্ভরযোগ্য সূত্রগুলো বলছে আজ বিকেলে ববি হাজ্জাজকে র‌্যাব-১ কথা বলার জন্য ডেকে নিয়ে যান সংবাদ সম্মেলনের ঠিক আগ মুহূর্তে। ববিকে এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি কোনো উত্তর দেননি।

সংবাদ সম্মেলনটি নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা পর অনুষ্ঠিত হয়। এর পরপরই গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলামকে জাতীয় পার্টির গবেষণা উইং ও ববি হাজ্জাজের কার্যালয়ের সামনে থাকতে দেখা যায়। এরপর গুলশান থানার গাড়িটি যায় রওশন এরশাদের বাসার সামনে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here