ককপিটে নারীকে ডেকেছিলেন ‘নিখোঁজ’ বৈমানিক!

29

M1‘ঠিক আছে, শুভরাত্রি’। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে সর্বশেষ এ কথা শোনা গিয়েছিল মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানের সহকারী বৈমানিক ফারিক আবদুল হামিদের কণ্ঠে। নিখোঁজ বিমান নিয়ে যখন রহস্য ক্রমেই ঘনীভূত হচ্ছে, তখন সেই হামিদ সম্পর্কে পাওয়া গেল চমকপ্রদ এক তথ্য। অভিযোগ উঠেছে, ২০১১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার এক নারী আরোহীকে বিমানের ককপিটে ‘আমন্ত্রণ’ জানিয়েছিলেন তিনি!
যুক্তরাজ্যের ডেইলি মেইল অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, হামিদ সম্পর্কে অভিযোগটি করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এক নারী। ‘নিখোঁজ’ বৈমানিকের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ প্রকাশিত হওয়ার পর নিরাপত্তা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মালয়েশিয়া এয়ারলাইনস। তবে এখনো ওই নারীর অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে পারেনি তারা

M2

 

 

 

 

 

 

 

মালয়েশিয়ার বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার পেছনে বৈমানিকদের হাত ছিল কি না, অনেক কিছুর সঙ্গে এ বিষয়টাও মাথায় রেখেছেন কর্মকর্তারা। সন্দেহটা আরও ঘনীভূত হয়েছে নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকার এক প্রতিবেদনে। মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে পত্রিকাটি জানিয়েছে, বিমানটির নির্দিষ্ট যাত্রাপথ থেকে সরিয়ে পশ্চিম দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে একটি কম্পিউটার থেকে। আর এটি করা হয়েছে বিমানটির ককপিট থেকেই। বিমান চালাতে সক্ষম ব্যক্তির পক্ষেই কেবল এটি করা সম্ভব।
ব্রিটেনের ডেইলি এক্সপ্রেস গতকাল এক প্রতিবেদনে জানায়, ২৭ বছর বয়সী হামিদ তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমিকা ক্যাপ্টেন নাদিরা রামলিকে শিগগিরই বিয়ে করার পরিকল্পনা করেছিলেন। বিয়ের সবকিছু চূড়ান্তও ছিল। নয় বছর

আগে সহকারী বৈমানিক হামিদের সঙ্গে শিগগিরই বিয়ে হওয়ার কথা ছিল তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমিকা নাদিরার। ছবি: ডেইলি মেইললঙ্গকাউইয়ির উড়োজাহাজ চালনা প্রশিক্ষণ স্কুলে পড়াশোনা করতে গিয়ে তাঁদের পরিচয়। সেখান থেকে প্রেম। বর্তমানে মালয়েশিয়ার সাবাহভিত্তিক বিমান সংস্থা এয়ার এশিয়ায় কাজ করছেন ২৬ বছর বয়সী নাদিরা।
কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে ডেইলি এক্সপ্রেস জানায়, হামিদের মায়ের যত্ন নেওয়ার জন্য এক মাসের ছুটি নিয়েছেন নাদিরা। হামিদের মা আর তিনি এখন কুয়ালালামপুরের একটি হোটেলে আছেন। ৮ মার্চ মধ্যরাতে (১২টা ৪১ মিনিট) মালয়েশিয়ার উড়োজাহাজটি ২৩৯ জন আরোহী নিয়ে নিখোঁজ হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here