ইনকিলাবসহ সব বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেয়ার দাবি খালেদা জিয়ার

13

khaledaবিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া আজ এক বিবৃতিতে ইনকিলাবসহ সব বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

তিনি ‘দৈনিক ইনকিলাব’ ভবনে রাতে পুলিশি হানা, পত্রিকাটির প্রকাশনা বিঘ্নিত করতে সিলগালা করা ও তিনজন সাংবাদিককে গ্রেফতারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তিনি শিঘ্রই দৈনিক ইনকিলাবসহ সকল বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেয়া এবং আটক সাংবাদিকদের মুক্তি দাবি করেন ।

বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপার্সন বলেন, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা স্বীকৃত গণতান্ত্রিক অধিকার। বর্তমান সরকারের আমলে জনগণের সকল অধিকার ফ্যাসিবাদী কায়দায় হরণ করা হয়েছে। রুদ্ধ করা হয়েছে নির্ভিকভাবে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে। এরআগে এই সরকার ‘দৈনিক আমার দেশ’ বন্ধ এবং সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে গ্রেফতার করে অন্তরীণ রেখেছে। এছাড়া ‘চ্যানেল ওয়ান, দিগন্ত টিভি ও ইসলামিক টিভি বন্ধ করে দেয়া হয়। তিনি বলেন, বিরোধী দল ও মত দমনে এ অন্যায় কর্মকান্ড গণতন্ত্রের জন্য কখনোই শুভ নয়। গণতান্ত্রিক পরিবেশ, শান্তি ও সমৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অনস্বীকার্য। তাই অবিলম্বে ইনকিলাব সহ সকল বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেয়া এবং গ্রেফতারকৃত সকল সাংবাদিককে মুক্তি দেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি।

অপর এক বিবৃতিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বর্তমান শাসকগোষ্ঠী ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে বিরোধী মত, সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা এবং মানুষের মৌলিক অধিকারকে হরণ করে কেবলমাত্র নিজেদের অপকর্ম ঢাকা দেয়া এবং ক্ষমতায় একচ্ছত্র আধিপত্য প্রতিষ্ঠিত করার জন্য।

মির্জা ফখরুল বলেন, অতীতে যেমন আওয়ামী লীগ সরকার নিজেদের পছন্দের চারটি পত্রিকা রেখে সমস্ত পত্রিকা বন্ধ করে মানুষের মতামত প্রকাশের স্বাধীনতাকে গলাটিপে হত্যা করেছিল, ঠিক একই কায়দায় বর্তমান সরকারও দেশের যেসব প্রিন্ট মিডিয়া এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়া সরকারের ব্যর্থতা ও অপকর্মের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করছে ক্রমান্বয়ে তাদেরকে বন্ধ করে দিচ্ছে।

বিএনপি মুখপাত্র বলেন, বিরোধী মত গলাটিপে ক্ষমতায় চিরস্থায়ীভাবে আসন গেড়ে বসার বাসনা আওয়ামী শাসনের ঐতিহ্য। তবে তাদের গণবিরোধী অনৈতিক দুঃশাসন সবসময় মুখ থুবড়ে পড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here