আফসারুল আমিনের বহিষ্কার দাবিতে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ

29

জনতার নিউজ

আফসারুল আমিনের বহিষ্কার দাবিতে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে  সংসদ সদস্য ডা. আফসারুল আমিনের অশোভন আচরণের প্রতিবাদে রবিবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বিক্ষোভ করেছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এছাড়া বিকাল ৪টায় চট্টগ্রামের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারেও মোশাররফ হোসেনের অনুসারীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে আফসারুল আমিনের বহিষ্কারের দাবি করেন।

গত শনিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন আয়োজিত ‘টেকসই জনবান্ধব গণপরিবহন ব্যবস্থা ও আমাদের করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনার একপর্যায়ে গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে চট্টগ্রাম-১০ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ডা. আফসারুল আমিনের বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় আফসারুল আমিন চেয়ার ছেড়ে উঠে গণপূর্তমন্ত্রীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ও চট্টগ্রাম চেম্বারের সভাপতি মাহবুবুল আলম তাকে থামান। অনুষ্ঠানস্থলে দুই নেতার সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতিও হয় এবং অনুষ্ঠানটি পণ্ড হয়ে যায়।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার দুপুর ২টার দিকে স্থানীয় উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মিরসরাই সদরে আফসারুল আমীনের বহিষ্কার দাবিতে বিক্ষোভ করেন। এ সময় ৩০ মিনিট ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ- আফসারুল আমিন চট্টগ্রাম মহানগরের সহ-সভাপতি হলেও নিজ এলাকা ছাড়া নগরের অন্য কোথাও রাজনীতিতে সময় দেন না। বিভিন্ন সময়ে চট্টগ্রামের অন্য সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়েছেন তিনি। আফসারুলের অনুসারী প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রামে ফ্লাইওভারের ঠিকাদারি কাজের ভাগ না পাওয়ায় তিনি ক্ষিপ্ত হয়েছেন। তাই উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবেই গণপূর্ত মন্ত্রীকে আক্রমণ করতে ওইদিনের অনুষ্ঠানে এসেছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত চট্টগ্রাম সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন  বলেন- ‘এই ঘটনা চরম অনাকাঙ্খিত। দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে এই ঘটনার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। দুই নেতা এক হয়ে এখনি ঘটনাটি মিমাংসা করা উচিত।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here