আগামীতে শিক্ষার্থীদের নোটবুক দেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী

13

pmপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামীতে শিক্ষার্থীদের হাতে নোটবুক (এক ধরনের ল্যাপটপ কম্পিউটার) তুলে দেওয়া হবে। এর মাধ্যমে তারা ইন্টারনেট থেকে ডিজিটাল বই নামিয়ে নিতে পারবে। আজ বুধবার সকালে গণভবনে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ উপলক্ষ্যে আয়োজিত চলতি বছরের বই উত্সবের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রধানমন্ত্রীর হাতে স্মারক হিসেবে এক সেট বই তুলে দেন। প্রধানমন্ত্রী কয়েকজন শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দিয়ে এই উত্সবের উদ্বোধন করেন। এ সময় রাজনৈতিক অস্থিরতা ও সহিংসতার মধ্যেও সঠিক সময়ে বই ছাপা ও বাঁধাইয়ের কাজ সময়মতো শেষ করায় সংশ্লিষ্ট সকলকে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম করেছি। ভালো ভালো স্কুলের ক্লাস ধারণ করে টিভিতে দেখাচ্ছি। ভালো স্কুলের ধারণকৃত ক্লাসগুলো শুধু বিটিভিতে না দেখিয়ে সংসদ অধিবেশন বন্ধ থাকার সময় সংসদ টিভিতেও তা প্রচারের ব্যবস্থা করতে বলেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের ৩ কোটি ৮৬ লাখ মানুষ এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তরুণেরা যাতে আউট-সোর্সিংয়ে দক্ষ হয়ে উঠতে পারে, সে ব্যবস্থা করার পরিকল্পনাও সরকারে রয়েছে। শিক্ষায় বিনিয়োগের চেয়ে আর বড় বিনিয়োগ নেই উল্লেক করে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের মন দিয়ে লেখাপড়া করার তাগিদ দেন। নতুন বইয়ে মলাট লাগিয়ে তাতে নিজের নাম লিখে রাখার কথাও ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের বলেন তিনি। শিক্ষার্থীদের হাতে বেশি বই তুলে না দিয়ে যুগের সঙ্গে তাল মিলয়ে বিষয় নির্দিষ্ট করতেও এনসিটিবি কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বইয়ের গুদামে আগুন দেওয়া হয়েছিল। বই ঠিকমতো পৌঁছানো যাবে কিনা সে বিষয়ে অনেকে সন্দিহান ছিলেন। কিন্তু সব প্রতিকূলতা ডিঙিয়ে বই পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। তিনি বলেন, বিরোধী দলের আন্দোলনে জনসম্পৃক্ততা নেই। এটা সন্ত্রাস নির্ভর আন্দোলন। আন্দোলনের নামে তারা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাচ্ছে। মানুষ, জীবজন্তু, শাকসবজি সব কিছুই তাদের আক্রমনের শিকার হচ্ছে।

২০১০ সাল থেকে চার বছরে শিক্ষার্থীদের ১২৪ কোটি পাঠ্যবই বই বিনা মূল্যে বিতরণ করেছে সরকার। এ বছর চার কোটি ৩৩ লাখ ৫৩ হাজার ২০১ জন শিক্ষার্থীর হাতে ৩১ কোটি ৭৭ লাখ ২৫ হাজার ৫২৬টি বই এবং শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হবে। আজ বৃহস্পতিবার সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে উত্সবের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়া হবে। ইতিমধ্যে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বই পৌঁছে গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here