অপকর্ম করলে ছাত্রলীগকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে : ওবায়দুল কাদের

19

obaydul kaderছাত্রলীগকর্মী দলের নাম ভাঙ্গিয়ে অপকর্ম করে তাহলে তাদেরও বিচারের আওতায় আনা হবে বলে মন্তব্য করেছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগের সভাপতিত্বে ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন সাবেক পররাষ্ট্র সচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী, ৭১ টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক ওমর শরীফ, কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয়, বিভিন্ন হল শাখার নেতা-কর্মী।
উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে খুশি কিন্তু পুরোপুরি তৃপ্ত নই। খুশি এ কারণে যে আমরা উৎসবমুখর ও সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ তৈরি করতে পেরেছি। কিন্তু আত্মতৃপ্ত নই কারণ আমরা এ নির্বাচনে ভালো করতে পারিনি। সাংগঠনিক দুর্বলতাই এ নির্বাচনে খারাপ করার প্রধান কারণ।’ তিনি বলেন, ‘সাংগঠনিক দুর্বলতা নিয়ে আমাদের বিশ্লেষণ করতে হবে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে সরকারের মধ্যে হারিয়ে যায়। হওয়ার কথা ছিল সরকার আওয়ামী লীগের মধ্যে হারিয়ে যাবে। কিন্তু আমাদের এটা হয় না। এ কারণেই আমাদের উপজেলা নির্বাচনে এত খারাপ হয়েছে।’
আগামী জুন মাসেই পদ্মা সেতুর কাজ শুরু হবে উল্লেখ করে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, পাঁচটি বিদেশি কম্পানি দরপত্র কিনেছে। এরমধ্যেই এর বাছাই কাজ শেষ করে আগামী জুনে এ সেতুর কাজ শুরু করব। আগস্ট মাসের মধ্যে নদী শাসনের কাজও শুরু হবে।
আমি এ অনুষ্ঠানে আসার ঘণ্টাখানেক আগেই দরপত্রের খবর জানতে পারি। জাপান, কোরিয়া, নেদারল্যান্ডস, হাইতি এবং ফ্রান্সের অনুমোদিত পাঁচটি কম্পানি দরপত্র কিনেছে। বর্তমান আমাদের রিজার্ভ আছে ১৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তার মধ্যে এ সেতুর জন্য লাগবে মাত্র দুই বিলিয়ন। আর এবছর লাগবে মাত্র ২০০ মিলিয়ন, বাকিটা আগামী তিন-চার বছরে লাগবে।”
কাদের বলেন, অনেকে পদ্মা সেতু নিয়ে সরকারবিরোধী বক্তব্য দেন। আজ থেকে তাঁরা দয়া করে চুপ হয়ে যান দেশের স্বার্থে। এ বিষয়ে যে বিতর্ক ছিল তা এখন অবসান হওয়া দরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here