জাতীয় নাক কান গলা ইন্সটিটিউটে রোগী ভর্তির কার্যক্রম শুরু

newsস্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে শিগগিরই চিকিত্সক সংকট নিরসন হতে চলেছে। আগামী ৭ আগস্ট সারাদেশে ৬ হাজার ২শ’ চিকিত্সক নিয়োগ দেওয়া হবে। ২৬ আগস্টের মধ্যে তারা কর্মস্থলে যোগ দেবেন।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর রাজধানীর তেজগাঁও’র বেগুনবাড়ি এলাকায় জাতীয় নাক কান গলা ইনস্টিটিউটের ইনডোর ও ওটি কমপ্লেক্স’র উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন। আর এরমাধ্যমে জাতীয় নাক কান গলা ইন্সটিটিউটের রোগী ভর্তির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হলো। যা দেশের নাক কান গলা রোগীদের চিকিত্সাসেবা প্রাপ্তিতে যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে।

এদিকে ৭ আগস্ট সকাল আটটা থেকে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ৩৩তম বিসিএস’র মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া চিকিত্সকদের যোগদান করতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, নতুন নিয়োগ দেওয়া চিকিত্সকদের নিজ নিজ জেলা-উপজেলায় পদায়ন করা হবে। এদের মধ্যে চিকিত্সক দম্পতি থাকলে তাদের একই স্থানে পদায়ন দেওয়া হবে। নিজ এলাকায় অবস্থান করে এসব চিকিত্সকরা মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। চলতি মাস থেকেই ইএনটি ইনস্টিটিউটে জরুরি সেবা চালুর তাগিদ দিয়ে তিনি বলেন, সার্বক্ষনিক স্বস্থ্যসেবা দিতে জরুরি বিভাগ প্রয়োজন। ৭ আগস্ট চিকিত্সক নিয়োগ শেষে উদ্বৃত্তদের ইএনটি ইনস্টিটিউটে পদায়ন করা হবে। হাসপাতালের আশপাশের পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখতে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, হাসপাতালের পার্শ্ববর্তী পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। কোন মহল অবৈধ স্থাপনা স্থাপনের উদ্যোগ নিলে তা বন্ধ করে দিতে হবে।

সিঙ্গাপুর সফরের কথা উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের তৈরি ওষুধ বিদেশে প্রশংসা কুড়িয়েছে। সিঙ্গাপুরের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশ থেকে ওষুধ নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। শ্রীলংকায় খুব শিগগিরই ওষুধ রপ্তানি করা হবে। এছাড়া ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনে ওষুধ রপ্তানির উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ধর্মঘট থেকে বিরত থাকতে চিকিত্সকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রোগী সেবা বন্ধ করে চিকিত্সকদের ধর্মঘটে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। চিকিত্সকদের লাঞ্ছিত করা ও হাসপাতাল ভাংচুর যেমন কারো কাম্য নয় তেমনি রোগী ফেলে রেখে চিকিত্সকদের কর্মবিরতি কেউ আশা করে না।

ইএনটি ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. জাহেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, বিএসএমএমইউ’র প্রিভেনটিভ এন্ড সোস্যাল মেডিসিন অনুষদের ডীন দেশের বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় নাক কান গলা ইন্সটিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. জাহেদুল আলম।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here