log5জামাতে ইসলামের প্রথম পরিকল্পনা ইতি মধ্য বাস্তবায়ন করা হয়েছে, তাদের প্রথম পরিকল্পনা ছিল বি,এন,পির ঘাড়ে ছড়ে ক্ষমতার দার প্রান্তে যাওয়া এবং প্রচুর আ্থিক ক্ষমতা অর্জন করা, তা তা্রা করেছে এর পর তারা বিদেশের যত জঙ্গি সংগঠন আছে তাদের সাথে নিবিড় সম্পর্ক ইতিমধ্য গড়ে তুলেছে তাদের সব চাইতে বড় সাফল্য হল তারা তারেক জিয়াকে তাদের জঙ্গি সংঠনের সাথে সম্পৃত্ব করা এটা তারা অতি সফলতার সাথে করছে।
তাদের দ্বিতীয় পরিকল্পনা ছিল, যে সব গরীব ছাত্র বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে তাদের কে আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে গোপন নেটওয়ার্ক স্থাপন করা, এই কাজটিও তারা তাদের বিভিন্ন কোচিং সেন্টা স্কুল কলেজ, মাদ্রাসা, মেডিক্যাল কলেজের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করেছে। বর্তমানে সারা দেশের বিভিন্ন স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের অগনিত কর্মি আছে, এদের একটা অংশ আছে ছাত্রলীগে আরেকটা অংশ আছে ছাত্র দলে,এদের মাসিক হারে অর্থ বরাদ্ধ দেওয়া হয়, এদের অনেকে মোটর সাইকেল যোগে চলে যাহা জামাত থেকে সরবরাহ করা হয়েছে।স্কুল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের নেটওয়ার্ক স্থাপন করার পরে তারা আরেকটি পরিকল্পনা করে যাহা ভয়াবহ আকার দারন করে আর তা হচ্ছে বিভিন্ন এলাকার সাবেক সন্ত্রাসী খুনি ও বস্তির ছেলেদের তারা প্রশিক্ষন দিয়ে, হত্যা খুন বোমাবাজিতে ব্যবহার করছে, একটু চোখ কান খোলা রেখে খুজলে আপনি এদের সহজে চিনতে পারবেন যেমন আপনার এলাকার সাবেক সন্ত্রাসী দেখবেন হঠাত পরিবর্তন হয়ে গেছে সে এখন দাড়ি রেখে মাথায় টুপি দিয়ে প্রায় মসজিদে যাতায়ত করছে আর তার আর্থিক অবস্থাও অনেক ভাল, সে এলাকায় সবাইকে বলে বেড়াবে ভাই জীবনে অনেক করেছি এবার আল্লাহর পথে চলে আসলাম, আপনারাও আসেন, সবাইকে দাওয়াত ও দিবেন।নামাজ পড়া, দাড়ি রাখা আল্লাহর নবীর সুন্নত, আমরা এটাকে শ্রদ্ধা করি কিন্ত এটা করে যদি মানুষ হত্যা করা হয় তাহলে তাকে ঘৃনা করা ছাড়া আর কি বা করার আছে।
জামাত বি,এন,পি সহ কিছু স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিকে তাদের সাথি হিসাবে নিয়েছে কিন্ত তাদের আসল শক্তি হচ্ছে তাদের প্রশিক্ষিত ক্যাডার যার শিকর স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, বিশ্ববিদ্যালয়,এলাকার মাস্তান ও বস্তি লেভেলে আর তাদের আর্থিক শক্তি হচ্ছে বিদেশী জঙ্গি সংগঠন থেকে পাওয়া মোটা অংকের টাকা এছাড়া আছে তাদের ব্যাঙ্ক, বীমা, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিক্যাল কলেজ সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ীক প্রতিস্টান
এক কথায় ব্যবসার সর্ব ক্ষত্রে তাদের শাখা প্রশাখা বিস্তার লাভ করেছে, তাদের মূল প্রশিক্ষন ঘাটি হচ্ছে কক্সবাজার, বান্দারবন পাহাড়ী এলাকা সহ চট্রগ্রাম এর সীতাকুন্ড, এলাকা, বার্মার প্রচুর রহিংগা কে তারা গোপনে বাংলাদেশী পাসপোর্ট করে দিয়ে ইতি মধ্য তাদের কে বিদেশে প্রেরন করা হয়েছে, এদের অনেকে আরব রাষ্ট্র গুলাতে চাকুরী করে আর জামাতের প্রচার করে, এদের বেতনের একটা অংশ নিয়মিত জামাতের ফান্ডে জমা হয়, রহিঙ্গয়াদের বলা হয়েছে আগে বাংলাদেশ থেকে নাস্তিক সরকার হঠানো হবে তার পরে তাদের সবাইকে মুসলমান হিসাবে বাংলাদেশের নাগরিকক্ত্ব দেওয়া হবে, এটা আরাকান এলাকার সকল রহিংগা মুসলমানরা জানে, তাই তারা তাদের জানপ্রান দিয়ে কক্সবাজার এলাকায় নানান অপকর্ম করে যাচ্ছে, এদের একটা অংশ আবার টাকার বিনিময়ে আওয়ামীলীগের বিভিন্ন পদ পদবী পেয়েছে।মূল অংশটা প্রকাশ্যে জামাতের রাজনিতি করে। একটা অংশের কাজ হচ্ছে আওয়ামীলীগার হয়ে আওয়ামীলীগের নামে বিভিন্ন সংখ্যালগুদের উপরে আক্রমন করে আওয়ামীলীগের বদনাম করা।

জামাতের সর্ব শেষ পরিকল্পনা হচ্ছে ১৯৭১ সালের আদলে পাকিস্থান স্টাইলে বাংলাদেশে ব্যাপক গোলজোগ সৃস্টি করে যুদ্ধাঅবস্থায় দেশকে নিয়ে যাওয়া আর তাদের প্রথম টারগেট হচ্ছে পুলিশ, তারা জানে কোন পুলিশ তাদের পক্ষের ইতি মধ্য তাদের প্রচুর সদস্য পুলিশ বাহিনীতে ডুকানো হয়েছে, আর সেনা বাহিনীতে তাদের যেই সকল কর্মি আছে এদের ক্ষমতা নাই বললেই চলে কারন বেশীর ভাগ হচ্ছে সিপাই লেভেলের এছাড়া ক্যাপ্টেন লেভেলে কিছু আছে বলে জানা যায়। এই মুহুর্তে বি,এন,পি নির্বাচন বা সংলাপ চাইলেও জামাত কোন অবস্থাতেই চাইবে না নির্বাচন বা সংলাপ। জামাত চাচ্ছে রাজনৈ্তিক অস্থিরতা, যার ফাক দিয়ে তারা একের পর এক ধবংশ যজ্ঞ চালিয়ে যাবে, তারা একটা টিম রেডি করেছে সুসাইড স্কোয়ার্ড নামে এদের কাজ হচ্ছে পুলিশ, সহ বড় বড় কর্মকর্তাদের হত্যা করা, জাতীয় সম্পদ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া, যার নমুনা আমরা ইতি মধ্য দেখতে পাচ্ছি।
বর্তমান সরকার যদি এটাকে সাধারন রাজনিতি হিসাবে নেয় তাহলে বড় ধরনের ভুল হবে এটাকে হালকা ভাবে না নিয়ে কঠোর হস্তে এদের ধমন করতে হবে, দরকার হলে নির্বাচন কিছু দিনের জন্য স্থগিত করে আগে দেশ থেকে সকল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে এদের বিচারের রায় কা্য্যকর করে নির্বাচন দিলে দেশ ঠিক হয়ে যাবে। কারন জনাব তারেক জিয়া ইতি মধ্য পৃথিবীর সকল জঙ্গি সংগঠনের সাথে তার নেটওয়ার্ক স্থাপন করছে আর তাকে যাবতীয় সহযোগিতা করে যাচ্ছে পাকিস্থানের আইএসাই।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here