দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের ৮ জন পেঁয়াজ আমদানিকারককে তলব করেছে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। আমদানিকারকদের নিকট চিঠি পাঠিয়ে মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কার্যালয়ে স্ব-শরীরে হাজির হওয়ার জন্য বলা হয়েছে।
তলবকৃত আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম রাইহান ট্রেডার্স, সুমাইয়া ট্রেডার্স, জগদিশ চন্দ্র ট্রেডার্স, এম আর ট্রেডার্স, সালেহা ট্রেডার্স, ধ্রব ফারিয়া ট্রেডার্স, বি কে ট্রেডার্স ও খান ট্রেডার্স।

বন্দরের আমদানিকারকেরা জানান, দেশে পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ায় এর কারণ উদঘাটনে দেশের অন্যান্য স্থলবন্দরের পাশাপাশি হিলি স্থলবন্দরের এই ৮ জন আমদানিকারককে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে নিয়ে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমদানিকারকেরা ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির স্বপক্ষে তাদের নথিপত্র ওই দপ্তরে দাখিল করবেন। সেখানে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা আমদানিকারকদের জিজ্ঞাসাবাদও করতে পারেন।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ সাংবাদিকদের কাছে পত্র পাওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, ৮ জন আমদানিকারকের মধ্যে দুইজন সোমবার কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরে হাজির হয়ে পেঁয়াজ আমদানির স্বপক্ষে কাগজপত্র দাখিল করেছেন। মঙ্গলবার বাকি ৬ জন হাজির হবেন।

এদিকে স্থানীয় কাস্টমস কার্যালয়ের একটি সূত্র জানায়, গত আগস্ট থেকে নভেম্বর মাসের ১৮ তারিখ পর্যন্ত এসব আমদানিকারকেরা ভারত থেকে কে কত মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করেছেন, কোথায় বিক্রি করেছেন এবং কত ডলারে আমদানি করেছেন সেসকল তথ্য আমদানিকারকদের প্রদান করতে বলা হয়েছে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here