বিয়ের পর নাকি অতি প্রিয় চাচাতো বোনটিকে চোখের আড়াল করে থাকতে পারছিলেন না, তাই নিজের স্বামীর সঙ্গেই তাকে বিয়ে দিয়ে দিলেন পাকিস্তানের মুলতানের এক নারী। কিন্তু বিধিবাম- তাদের এই চকমপ্রদ সিদ্ধান্তে ক্ষেপে গেছে দুইবোনের পরিবার ও স্থানীয় সমাজের লোকজন।
পাকিস্তানের দুনিয়া নিউজ ওই ঘটনার ভিডিও শেয়ার করেছে টুইটারে। প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, পাঞ্জাব প্রদেশের মুলতানের সামিজাবাদ এলাকার ফারাজ নামের এক তরুণ মাস দেড়েক আগে বিয়ে করেন আলিনা নামের এক তরুণীকে। এরপর নববধূ আলিনা তার চাচাতো বোন আলিস্মাকেও কয়েক সপ্তাহের মধ্যে বিয়ে দেন নিজের স্বামীর সঙ্গে।
দেশটির সামা টিভিও এই ‘ত্রিরত্নের’ ইন্টারভিউ প্রচার করেছে। ঘটনা জানাজানি হলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আলিনা বলেন, নিজের জ্ঞাতি বোনকে না দেখে থাকতে পারছিলেন না। তাই তাকে সব সময় কাছে রাখার জন্য নিজ স্বামীর সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন। অপরদিকে, আলিস্মা জানান- বোনকে ছাড়া তারও দিন কাটছিল না। অবস্থা এমন হয় যে আলাদা হয়ে দুজনের পক্ষে বেঁচে থাকা অসম্ভব হয়ে পড়ে। 
তবে তারা দুই চাচাতো বোন একই স্বামী নিয়ে সংসার করে সন্তুষ্ট থাকলেও সমাজ তাদের শত্রু হয়ে গিয়েছে। ফারাজ জানান, তার স্ত্রীদের স্বজনরা তাকে খুঁজছে এবং লাগাতার হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। এরই মধ্যে আলিনা এবং আলিস্মার পরিবার মামলা করেছে তাদের স্বামী ও তাদের বিরুদ্ধে। অপরদিকে, দেশটির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ঘটনা নিয়ে ব্যাপক ঠাট্টা-মশকরা, তর্ক-বিতর্কও চলছে। দুনিয়া নিউজ, শামা টিভি।
শেয়ার করুন
  • 54
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here