ভারতের উত্তর প্রদেশের বুলান্দর শহরে এক নারীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পিটিয়েছেন তার স্বামী। স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগে এ নির্যাতন করা হয় বলে জানা গেছে। ওই ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। এতে সমালোচনার ঝড়ও ওঠে। 

 
জানা গেছে, গ্রাম পঞ্চায়েত অবৈধ সম্পর্কের ঘটনায় ওই নারীকে ১০০ ঘা মারার আদেশ দেয়। এরপর ওই নারীকে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে বেল্ট দিয়ে মারতে থাকে তার স্বামী। সে সময় পুরো গ্রামবাসী এ দৃশ্য দেখছিলেন।

ভিডিওতে দেখা গেছে, একটি গাছের চারপাশে জড়ো হয়েছে গ্রামবাসীর। গাছের সঙ্গে দড়ি দিয়ে দুহাত বাঁধা এক নারীকে তার স্বামী বেল্ট দিয়ে পেটাচ্ছেন। ভিডিওতে গোলাপি ও সাদা রঙের শাড়ি পড়া ওই নারীর কান্না শোনা যায়।

এদিকে, ওই নারীর অভিযোগ, মার খেয়ে ক্লান্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ার পর গ্রামের পুরুষরা তাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। জ্ঞান ফিরে আসলে এ ঘটনা পুলিশকে না জানাতে তাকে সতর্ক করে দেওয়া হয়।

পুলিশের একজন মুখপাত্র জানান, চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ওই নারী তার প্রেমিককে নিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। এরপর এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নেন। ক্ষমা করে দিয়েছেন বলে ১০ মার্চ তার স্বামী তাকে ফিরিয়ে আনেন। ফিরে আসার পর গ্রামের সালিশি বৈঠকে ওই নারীকে সাজা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। তারা জানায়, ওই নারীকে ১০০ ঘা মারতে হবে। পরে ওই নারী একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনায় গ্রামের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ পরিদর্শক আলতাফ আনসারি জানান, ওই নারীর স্বামী সৌদান, গ্রাম্য প্রধান শের সিং ও তার ছেলে শ্রাবণ সিংয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। 

সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

শেয়ার করুন
  • 29
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here