সিলেটে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের ব্যানার, ফেস্টুন, তোরণ, বিলবোর্ডে নগর ছেয়ে গেলেও জামায়াত-শিবির এক্ষেত্রে কিছুটা পিছিয়ে ছিল। নগরে তাদের কোন প্রচারণা চোখে পড়েনি। একরাতের মধ্যেই কৌশলী জামায়াত-শিবির তাদের প্রচারণার সেই ঘাটতি পুষিয়ে অতিরিক্ত ফায়দা থলিতে পুরেছে।

নগরে কয়েকদিনে কয়েক শ’ তোরণ নির্মাণ করা হয়। যিনি তোরণ নির্মাণ করেছেন তার ছবি ও ব্যনার ছিল সেই তোরণে। তবে, কিছু তোরণ ছিল যাতে কোন ব্যানার ছিলনা। তোরণগুলোতে জামায়াত নেতাদের ছবি সম্বলিত বিভিন্ন দাবি নিয়ে ব্যানার লাগানো হয়েছে।

একইভাবে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠের জনসভাস্থলে লাগানো হয়েছে যুদ্ধাপরাধের মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতাদের মুক্তির দাবিতে ব্যানার।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্দেশ অমান্য করে গতকাল ভোরে তারা মাঠের উত্তর পাশসহ জনসভাস্থলের বিভিন্ন স্থানে জামায়াত নেতা গোলাম আযম, মতিউর রহমান নিজামী, দেলওয়ার হোসেন সাঈদী, কাদের মোল্লাসহ মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডিত নেতাদের ছবি সম্বলিত ব্যানার টানিয়েছে। এছাড়া জনসভাস্থলের চারপাশে রাস্তায় এসব নেতাদের ছবি দিয়ে তাদের মুক্তির দাবি জানিয়ে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। জনসভাস্থলের পাশে ওই সকল নেতাদের ছবিসম্বলিত কয়েকটি বেলুনও উড়িয়েছে জামায়াত-শিবির।

খালেদা জিয়ার জনসভা সফলে গত সপ্তাহে সিলেটে আসেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ওইসময় তিনি ১৮ দলীয় জোটের নেতাদের নিয়ে বৈঠক করেন। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় জনসভার দিন মাদ্রাসা মাঠে খালেদা জিয়া, তারেক রহমান, জিয়াউর রহমান ও ইলিয়াস আলী ছাড়া অন্য কোন নেতার ছবি সম্বলিত ব্যানার টানানো যাবে না। ওই সভায় জামায়াত নেতারা তাদের কারান্তরিণ নেতাদের নামে ব্যানার টানানোর দাবি জানালে খন্দকার মোশাররফ তা নাকচ করে দেন।

এরপর থেকে জামায়াত নেতারা কৌশল অবলম্বন শুরু করেন। তারা গত কয়েকদিনে জনসভাস্থলের আশপাশসহ বিভিন্ন স্থানে ব্যানার ছাড়াই তোরণ নির্মাণ করে রাখেন। আলীয়া মাদ্রাসা মাঠের পাশে ব্যানার লাগানোর জায়গাও দখল করে রাখেন। ভোররাতে এসব তোরণ ও ব্যানার লাগানোর জায়গায় তারা যুদ্ধাপরাধের দায়ে দণ্ডিত নেতাদের মুক্তির দাবিতে ছবি সম্বলিত ব্যানার লাগিয়ে দেন।

দলীয় সূত্র জানায়, জামায়াত নেতারা তাদের কারান্তরিণ নেতাদের মুক্তির দাবি জানিয়ে ৭-৮ লাখ টাকার ডিজিটাল ব্যানার তৈরি করেন। তবে জায়গা না পাওয়ায় সবগুলো ব্যানার লাগানো সম্ভব হয়নি।juddhaopradhi

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here