জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা হলে বিএনপি চেয়াপারসন খালেদা জিয়াকে ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হতে পারে। কারা অধিদফতর সংলগ্ন বকশী বাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালত থেকে তাকে দ্রুত এই পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া যাবে বলে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। সেলক্ষ্যে প্রাথমিক প্রস্তুতিও শুরু করেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

পুরাতন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের পূর্ব ও উত্তর অংশে মহিলা ওয়ার্ড। ওয়ার্ড লাগোয়া একটি দেয়াল। দেয়ালে একটি গেট আছে। এই গেট দিয়ে প্রবেশ করলে একটি দোতালা ভবন পড়ে। এই ভবনের ২য় তলায় বিউটি পারলার ও নারী বন্দীদের সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। ২০১৬ সালের ২৮ জুলাই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার কেরানীগঞ্জে স্থানান্তর করা হয়। এরপর থেকে এই দোতালা ভবনের সকল কার্যক্রম বন্ধ ছিল। এক সপ্তাহ আগে থেকে এই দোতালা ভবনের সংস্কার কাজ শুরু করেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

তবে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষের একজন কর্মকর্তা বলেন, আদালতের বিচারাধীন অনেক আসামি মাঝে মধ্যে অসুস্থ হয়ে গেলে তাত্ক্ষণিক তাদেরকে এই পুরাতন কারাগারে আনা হয়। এজন্য এই পুরাতন কারাগারটি আগে থেকে সংস্কার করে রাখা হয়েছে। এজন্য একজন ডেপুটি জেলার দায়িত্ব পালন করছেন।

দোতালা ভবনের নীচতলায় কারাগারে ডে কেয়ার সেন্টার ছিল। সেটি ২০০৮ সালে কাশিমপুর মহিলা কারাগারে স্থানান্তর করা হয়। এই ডে কেয়ার সেন্টারটিও ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করা হয়েছে। এ নিয়ে পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে র্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে সারাদেশের মানুষের মধ্যেই বাড়তি আতঙ্ক বিরাজ করছে বলে তাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে। মানুষ অজানা আতঙ্কে ভুগছেন। এজন্য সারাদেশেই নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে

শেয়ার করুন
  • 87
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here