sybernews

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তি খাতে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রযুক্তির উন্নয়নকে টেকসই করতে মহাপরিকল্পনা (মাস্টারপ্লান) প্রণয়নের কাজ চলছে। আবার বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে সাইবার অপরাধও জ্যামিতিক হারে বাড়ছে। এ অপরাধ দমনে সাইবার সিকিউরিটি গাইডলাইন প্রণয়ন করেছি। সাইবার সিকিউরিটি আইন প্রণয়নের কাজও চলছে। চলতি বছরের মধ্যেই এ আইন কার্যকর করা হবে। একইসাথে পূর্ণাঙ্গ সাইবার সিকিউরিটি এজেন্সি স্থাপনের পরিকল্পনাও রয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীতে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) মিলনায়তনে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় গত এক বছরে মন্ত্রণালয়ের অর্জনের তথ্য এবং আগামী চার বছরের পরিকল্পনা তুলে ধরেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কে ডেভলপার নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। যশোর হাইটেক পার্কেও প্রথম পর্যায়ের কাজ আগামী মার্চে শেষ হবে। এ হাইটেকপার্কগুলো স্থাপনের মাধ্যমে আগামী ৪ বছরে ৭০ হাজার দক্ষ জনশক্তির কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। গ্লোবাল সার্ভিস লোকেশন ইনডেক্সে বাংলাদেশ ২৬তম স্থান দখল করেছে। অনলাইন মার্কেট প্লেস ওডেস্কে বাংলাদেশ ৩য় স্থান অর্জন করেছে। বাংলাদেশের তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে বিপুল বিদেশী বিনিয়োগও আসছে, যা এ খাতে দেশকে এগিয়ে নেয়ারই প্রমাণ।

তিনি জানান, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নাম পরিবর্তন করে আইসিটি কাউন্সিল করা হবে। ১টি জেলায় সফটওয়্যার উন্নয়ন পার্ক করা হবে। দেশে উত্পাদিত ও বিদেশ থেকে আমদানিকৃত সফটওয়ারগুলোর মান নির্ধারণের জন্য সফটওয়্যার সার্টিফিকেশন সেন্টার স্থাপন করা হবে। ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার অনুমোদনও দেয়া হয়েছে।

সাংবাদিক সম্মেলনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারসহ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বক্তব্য রাখেন।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here