একসময় বলিউডে রাজত্ব করেছিলেন শ্রীদেবী। অভিনয় আর নাচ দিয়ে গত শতকের আশি আর নব্বই দশকের হিন্দি ছবির দর্শকদের মাতিয়ে রেখেছিলেন। ‘হাওয়া হাওয়াই’ ছবি দিয়ে শ্রীদেবীর বলিউডে অভিষেক হয়েছিল ১৯৭৫ সালে।

বলিউডের বরেণ্য অভিনেত্রী শ্রীদেবী শনিবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ দুবাইয়ে হৃদ্রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৪ বছর।

‘জুলি’ ছবিতে যখন তিনি অভিনয় করেন, তখন তিনি ছিলেন শিশুশিল্পী। তবে নায়িকা হয়ে অভিনয়জীবন শুরু করেন ১৯৭৯ সালে। তামিল ভাষার ওই ছবির নাম ‘ষোলওয়া শাওন’। শ্রীদেবী অভিনয় করেছেন ১২৬টি ছবিতে।

শ্রীদেবী ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান ‘হিম্মতওয়ালা’ ছবিটি মুক্তির পর। ১৯৮৩ সালে মুক্তি পেয়েছিল ছবিটি। এই ছবিতে শ্রীদেবী অভিনয় করেন জিতেন্দ্রর সঙ্গে।

‘জুদাই’ ছবিতে শ্রীদেবী একজন লোভী নারীর চরিত্রে অভিনয় করেন। মধ্যবিত্ত পরিবার। ধনী হওয়ার স্বপ্ন তাঁর। প্রচুর অর্থ পাওয়ার লোভে স্বামীকে তাঁর প্রতিষ্ঠানের মালিককে বিয়ে করার অনুমতি দেন। এই ছবির পর বাস্তব জীবনে স্বামী আর সন্তান নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন শ্রীদেবী। ‘জুদাই’ শ্রীদেবী সেরা নবম ছবি।

‘চালবাজ’ ছবিতে শ্রীদেবী দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেন। তাদের একজন ভদ্র-নম্র অঞ্জু আর অন্যজন খুবই দুরন্ত মঞ্জু। শ্রীদেবী তাঁর পঞ্চম সেরা এই ছবির জন্য ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে সেরা নায়িকার পুরস্কার পান।

‘ইংলিশ ভিংলিশ’। ১৫ বছর বিরতির পর এই ছবি দিয়ে বড় পর্দায় ফিরে আসেন শ্রীদেবী। ছবিতে শ্রীদেবী একজন গৃহবধূ। ইংরেজি মোটেই বলতে পারেন না। এর জন্য স্বামী আর সন্তানদের কাছে প্রায়ই কথা শুনতে হয়। এদিকে পারিবারিক এক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বিদেশে যেতে হয়। সেখানে সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে ইংরেজিতে কথা বলার কোর্স করেন তিনি। ছবিটি দারুণ ব্যবসাসফল হয়। এই ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার পান শ্রীদেবী।

শেয়ার করুন
  • 2
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here