একাত্তরে শহীদ বুদ্ধিজীবী সাংবাদিক সেলিনা পারভীনের ছেলে সুমন জাহিদের (৫২) দ্বিখণ্ডিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর খিলগাঁও বাগিচা এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সুরতহালের জন্য তার লাশ ডিআরপি (রেলওয়ে পুলিশ) থানা, কমলাপুরে রাখা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত পলাতক চৌধুরী মাঈনুদ্দিন ও আশরাফুজ্জামান খানের বিরুদ্ধে সাক্ষী ছিলেন তিনি।

ঢাকা রেলওয়ে থানার ওসি ইয়াসিন ফারুক বলেন, ‘সুমন জাহিদের শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি, ট্রেনে কাটা পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য সুমন জাহিদের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি একটি ব্যাংকে চাকরি করতেন।

এদিকে নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সুমনের গ্রামের বাড়ি ফেনীতে, বেশিরভাগ সময় ফেনীতে কাটাতেন। তিনি ফারমার্স ব্যাংকে চাকরি করতেন, কিন্তু ব্যাংকটি দেউলিয়া হয়ে যাওয়ায় অভাব অনটনের মধ্যে সুমনকে পড়তে হয়। সুমনের বাড়িতেও জায়গা জমি নিয়ে নানান টান পোড়ন পোহাতে হচ্ছিল। সব কিছু মিলিয়ে তিনি কিছুটা হলেও মানসিকভাবে দুর্বল ছিলেন।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here