অভিনেত্রী শমী কায়সারের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মানহানির মামলা অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন্সকে (পিবিআই) অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এ সংক্রান্ত এক আবেদনের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমান সোমবার এই আদেশ দেন।

চুরির সন্দেহে সাংবাদিকদের আটকে রাখার ঘটনায় শমীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। গত ২৪ অক্টোবর এ মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগের ‘সত্যতা পায়নি’ মর্মে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেন তদন্ত কর্মকর্তা ও শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহবুব রহমান। ওই প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন দেন মামলার বাদী স্টুডেন্ট জার্নাল বিডির সম্পাদক নুজহাতুল হাসান।

গত ২৪ এপ্রিল জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান থেকে শমী কায়সারের দুটি স্মার্টফোন চুরি হয়ে যায়। ওই অনুষ্ঠানে প্রায় অর্ধশত সাংবাদিক ও ক্যামেরা পারসন এবং শতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন। হারানো মোবাইল সাংবাদিকরা চুরি করেছেন বলে গেট আটকে রাখেন এবং সবাইকে তল্লাশির কথা বলেন। পরে টিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে বাইরের একজনের কাছ থেকে মোবাইল দুটি পাওয়া যায়। এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে। পরে ৩০ এপ্রিল দণ্ডবিধির ৫০০ ধারায় এ মানহানি মামলা দায়ের করা হয়।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here