জনতার নিউজ

লাশ নেয়নি পরিবার, আবীরকে কিশোরগঞ্জেই দাফন

ঈদের সকালে শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের কাছে হামলার সময় নিহত ‘জঙ্গি’আবীর রহমানের লাশ পরিবার গ্রহণ না করায় তাকে কিশোরগঞ্জে দাফন করা হয়েছে; তার জানাজায়ও ছিল না কেউ।

সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ পাহারায় জেলা শহরের পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয় বলে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন জানান।

বৃহস্পতিবার ঈদের দিন শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের মাঠের কাছে পুলিশ ও হামলাকারীদের গোলাগুলির পর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবীরের (২২) লাশ পাওয়া যায়। এরপর তাকে অন্যতম হামলাকারী হিসেবে চিহ্নিত করে পুলিশ। সন্ত্রাসবিরোধী আইনের করা মামলায় তাকেও আসামি করা হয়েছে। ঢাকার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ডি ব্লকে আবীরদের বাসা। তাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার দেবিদ্বারে। তিনি চার মাস ধরে নিখোঁজ ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শোলাকিয়ায় হামলার ছয় দিন আগে ঢাকার গুলশানে হামলাকারী হিসেবে শনাক্ত তিন যুবকও আবীরের মতো নিখোঁজ ছিলেন বলে তাদের পরিবারের ভাষ্য।  এরপর নিহতের আগের দিন গত ৬ জুলাই আবীরের বাবা সিরাজুল ইসলাম ছেলে নিখোঁজের বিষয়ে রাজধানীর ভাটারা থানায় জিডি করেন। নিহতের পর আবীরের লাশ বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে ছিল।

ওসি মীর মোশারফ হোসেন বলেন, পরিবারের সদস্যরা আবীর রহমানের লাশ নিতে না চাওয়ার কারণে তাকে কিশোরগঞ্জেই দাফন করার সিদ্ধান্ত হয়।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here