dawodnews

ভারতের মুম্বাইয়ের অপরাধ জগতের মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিমের ভাতিজা এবং সঙ্গীত পরিচালক গুলশান কুমার হত্যা মামলার যাবজ্জীবন দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি আব্দুর রউফ দাউদ মাচেন্ট (৪৫) ফের ঢাকায় গ্রেফতার হয়েছেন। সোমবার কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তির পর ভোর রাতে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন— বুধবার তাকে আদালতে হাজির করা হবে।

মুম্বাইয়ের সঙ্গীত প্রয়োজক প্রতিষ্ঠান টি-সিরিজের স্বত্ত্বাধিকারী গুলশান কুমার ১৯৯৭ সালের ১২ অগাস্ট আন্ধেরি এলাকার একটি মন্দির থেকে বের হয়ে আসার সময় সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। এ ঘটনায় ২০০১ সালে গ্রেফতার হয় ভাড়াটিয়া খুনি দাউদ মার্চেন্ট। ২০০২ সালে আদালত তাকে যাবজ্জীবন দণ্ডাদেশ প্রদান করে। তবে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন দাউদ। এরপর ২০০৯ সালে মায়ের মৃত্যুর কারণে ১৪ দিনের পারোলে মুক্তি পেয়ে পালিয়ে যান তিনি। আর ওই বছরের ২৮ মে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুড়ালিপাড়া থেকে এক সহযোগীসহ তাকে গ্রেফতার করে বাংলাদেশের পুলিশ। পাসপোর্ট আইনে একটি মামলাও হয় সে সময়।

মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ সূত্র জানিয়েছে— সোমবার সন্ধ্যায় গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তি পান দাউদ মার্চেন্ট। কিন্তু গোয়েন্দা পুলিশ বিষয়টি জানতে পারে মুক্তি পাওয়ার পর। এরপর ব্যাপক অনুসন্ধান চালিয়ে ভোররাতের দিকে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে। ভারত সরকার তাকেও ফিরে পেতে আগ্রহী।

ডিআইজি প্রিজন (ঢাকা) গোলাম হায়দার বলেন, একটি মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে ছিলেন দাউদ মাচেন্ট। গত ১৯ নভেম্বর তিনি আদালত থেকে জামিন পান। আর সেই জামিনের নথিপত্র কারাগারে পৌঁছে গত ২৯ নভেম্বর। সব কিছু যাচাই-বাছাই করে সোমবার সন্ধ্যায় কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জেলার তাকে জানিয়েছেন দাউদ মার্চেন্ট মুক্তি পাচ্ছেন বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সবাইকে আগে থেকেই অবগত করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here