ভারতে জালিকাট্টু খেলার ষাঁড়ের যত্ন নেবার জন্য তামিলনাড়ু রাজ্যের সেলভারানি কানাগারাসু নামে এক মহিলা জীবনে বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। জালিকাট্টু হচ্ছে তামিলনাড়ুর শত শত বছরের পুরনো একটি খেলা যা জানুয়ারি মাসে পোঙ্গল নামে ফসল ওঠার উৎসবের সময় অনুষ্ঠিত হয়। 
ষাঁড়ের শিংয়ের সঙ্গে নানারকম পুরস্কার বেঁধে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। আর হাজার হাজার লোকে ষাঁড়টিকে তাড়া করে সেগুলো খুলে নেবার চেষ্টা করে। এ সময় ধাবমান ষাঁড়ের গুঁতোয় বা খুরের আঘাতে বহু লোকের মৃত্যুও হয়। ‍জানা গেছে, সেলভারানির বয়েস এখন ৪৮, তার পোষা ষাঁড়টির নাম ‘রামু’ এবং সে পাঁচবার জালিকাট্টুর শিরোপা জিতেছে। এ ক্ষেত্রে রামু এখন ‘কিংবদন্তীর’ মর্যাদা পাচ্ছে।
প্রতিযোগিতার নিয়ম হলো, কেউ যদি ষাঁড়ের কাঁধ ধরে ঝুলে থেকে ১৫-২০ মিটার পার করতে পারে বা ষাঁড়ের তিনটি লাফ টিকে থাকতে পারে- তাহলে সে জয়ী হয়। কেউ তা না পারলে ষাঁড়টিই জয়ী হবে। সেলভারানির পিতা এবং পিতামহও জালিকাট্টুর ষাঁড় পালন করতেন। সেলভারানি কিশোরী বয়েসেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে তিনিও এ কাজই করবেন। তার কথায়, ‘রামু আমার সন্তানের মতো। ও যে শুধু আমাকে পুরস্কার এনে দিয়েছে তাই নয়, আমার পরিবারকে সম্মানও এনে দিয়েছে।’ বিবিসি।
শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here