ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের ছেলে-মেয়েরা খেলাধুলার বিভিন্ন জায়গায় ভালো করছে। প্রতিবন্ধীরাও কিন্তু পিছিয়ে নেই। মেয়েরাও এখন পিছিয়ে নেই। এএফসি টুর্নামেন্টে মেয়েরা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আগামী বিশ্বকাপে নারী ক্রিকেটাররা জায়গা করে নিয়েছে। বিশ্বকে দেখিয়ে দিতে চাই প্রতিযোগিতায় আমরাও পারি।

আজ শনিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‍যুব গেম ২০১৮ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সন্ধ্যা ৬ টা ৪০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্টেডিয়ামে আসন গ্রহণের পর জাতীয় সঙ্গীতের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিকতা। যুব গেমসের উপজেলা, জেলা ও বিভাগী পর্যায়ের খেলা শেষে শুরু হলো পদক জয়ের লড়াই। ২১ টি ডিসিপ্লিন নিয়ে হয়েছে প্রথম বাংলাদেশ যুব গেমস।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, খেলাধুলা শৃঙ্খলাবোধ ও অধ্যবসায় শেখায়, দায়িত্বজ্ঞান সম্পন্ন ও কর্তব্যপরায়ণতা করে এবং সহনশীলতার শিক্ষা দেয়। আমরা সব সময় বিশ্বাস করি শুধু লেখাপড়া না, লেখাপড়ার সাথে সাথে খেলাধুলা আর সাংস্কৃতিক চর্চা; এটা একান্তভাবে অপরিহার্য।

শেখ হাসিনা বলেন, ইতোমধ্যে ফুটবল ও ক্রিকেটে বেশ এগিয়েছে বাংলাদেশ। ক্রিকেটে বাংলাদেশ কোর্য়ার্টার ফাইনালে খেলেছে, আমরা বিশ্বাস করি একদিন বিশ্বকাপ জয় করতে পারবো। খেলাধুলার মাধ্যমে প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব গড়ে তোলার কথাও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ যেমন অর্থনৈতিক ও সামাজিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, তেমনিভাবে ক্রীড়া ক্ষেত্রেও পিছিয়ে নেই। খেলাধুলায় জড়িত থাকলে শিশুদের মনোবল দৃঢ় হয় এবং প্রতিযোগী মনোভাব সম্পন্ন জাতি হিসেবে গড়ে ওঠবে।

তিনি আরো বলেছেন, এই খেলাধুলার মধ্যে দিয়ে আমরা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ যেমন মোকাবেলা করব। তেমনি মাদকাসক্তি থেকে আমাদের যুব সমাজকে রক্ষা করব।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন যুব গেমসের সাংগঠনিক কমিটির চেয়ারম্যান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এবং বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক।

শেয়ার করুন
  • 33
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here