আবুল খায়েরঃ জনতার নিউজ

সীমা গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও সীতাকুণ্ড আওয়ামীলীগের দুঃসময়ের কান্ডারী ও দলকে আর্থিক সহায়তাকারি

  মরহুম আলহাজ্ব শফি

সাহেবেডলোকেসুযৌগ্য  সন্তান সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জনাব পারভেজ উদ্দিন সান্টু এবার সীতাকুণ্ড থেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি একজন রাজপথের কর্মি ছিলেন বর্তমানে সরকারের উন্নয়নের প্রচার করে যাচ্ছেন যাহা করার কথা বর্তমান সংসদ সদস্যের, জনাব পারভেজ একজন সজ্জ্বন ও অমায়িক কর্মি বান্ধব মানুষ।   তার কথা আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক আমি ছাত্রলীগ কর্মি ছিলাম তাই মনোনয়ন দিবে কি দিবে না সেটা তার কাছে বড় নয় তিনি আদর্শের জায়গা থেকে দলের কাজ করে যাচ্ছেন ও করবেন ।

জনাব পারভেজ  একান্ত স্বাক্ষাতকারে যা বললেন,?

প্রশ্নঃ  জনাব পারভেজ নির্বাচনের সময় অনেকে উড়ে এসে মনোনয়ন চেয়ে পরে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে দলের নেতা কর্মিদের বঞ্চিত করে আপনি ও কি তাই করবেন,

উত্তরঃ দেখুন আমি উড়ে এসে জুড়ে বসার মত নয় আমি রাজপথের কর্মি  ছিলাম ও আছি বর্তমানেও নিজের পকেটের টাকা খরচ করে দলের উন্নয়নের প্রচার করে যাচ্ছি আমার বাবা মরহুম হাজি শফি সাহেব দলের জন্য নিবেদিত প্রান ছিলেন, আমার বাবা দলের জন্য সব সময় আর্থিক সহযোগিতা করে গেছেন যাহা এলাকা বাসির জানা আছে, আমি ২০০১ ইং সালে ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের অর্থ সম্পাদক ছিলাম , এবং ২০১৬ ইং সাল থেকে আওয়ামী তাতী লীগের  চট্রগ্রাম উত্তর জেলা যুগ্ন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি, আমি এলাকার যুবকদের বেকার সমস্যা দূরীকরনের  চেস্টা করে যাচ্ছি ইতিমধ্য অনেক কে আমার প্রতিষ্ঠান সীমা গ্রুপে চাকুরী দিয়েছি, আমি মনে করি এলাকার বেকার সমস্যা দূর করতে পারলে  মাদক ও সন্ত্রাস সম্পুর্ণ নির্মুল হয়ে যাবে।

প্রশ্নঃ সীতাকুণ্ড এলাকায় অনেকে বলেন আওয়ামীলীগের অনেক নেতা কর্মি আছে কিন্ত অভিবাবক নাই শুধু গ্রুপিং আপনাকে যদি দল মনোনয়ন দেয় তাহলে আপনি দলের জন্য ও জনগনের জন্য কি করবেন ?

উত্তরঃ আমি যদি মনোনয়ন পাই তাহলে দলের কর্মীদের নিয়ে এক সাথে কাজ করবো এখানে কোন গ্রুপিং থাকবে না কারন দলীয় নেতাকর্মীদের অবস্থা আমি বুঝি, যেহেতু আমিও তৃণমুল থেকে রাজ পথে আন্দোলন করে এই পর্যায়ে এসেছি আমি বুঝি তৃণমুলের নেতা কর্মীরা সংগঠনের প্রান আর প্রানহীন হয়ে কেহ টিকে থাকতে পারবে না। এলাকার জনগনের বেকারত্ব দূর করার চেস্টা করে যাবো কারন বেকার সমস্যা না থাকলে মাদক ও সন্ত্রাস থাকবে না তখন এই যুবসমাজ ই সরকারের উন্নয়নের হাতিয়ার ও শক্তিতে পরিনত হবে।

 

প্রশ্নঃ মনে করেন আপনাকে নেত্রী মনোনয়ন দিয়েছেন ও আপনি নির্বাচিত ও হলেন যদি তাই হয় তাহলে এলাকার মাদক ও সন্ত্রাস দমনে আপনার ভূমিকা কি হবে? বর্তমানে সীতাকুণ্ড মাদক ও সন্ত্রাসে ভরে গেছে গত কিছু দিন যাবত আওয়ামীলীগের নেতা কর্মিদের বাড়ি ঘরে হামলা হচ্ছে এইত সেদিন দুই যুবলীগ কর্মী খুন হলেন, কিন্তু পুলিশের ভূমিকা ও বর্তমান এমপির ভূমিকা রহস্যজনক

কারন ,শান্ত সীতাকুণ্ড এখন সন্ত্রাসের জনপথে পরিনত হয়েছে, নির্বাচিত হলে আপনার ভুমিকা কি হবে ?

উত্তরঃ দেখুন বেকার সমস্যার কারনে যুবসমাজের একটা অংশ মাদক ও সন্ত্রাসে দিকে ঝুকে পড়ছে, আমি আগেই বলেছি যে আমি নির্বাচিত হলে আমার প্রথম কাজ হবে এলাকার বেকার সমস্যা দূর করা, তাহলে আর মাদক সন্ত্রাস থাকবেনা, আওয়ামীলীগে  কোন  গ্রুপিং থাকবে না যার যতটুকু সন্মান প্রাপ্য সে ততটুকু সন্মান পাবে। কোন নেতা কর্মিকে বঞ্চিত করা হবে না, আর অন্যায়কারীকে কোন সহায়তা দেওয়া হবে না সকল সন্ত্রাসীকে আইনের আওতায়  এনে বিচারের ব্যবস্থা করা হবে অন্যায়কারী যে দলেরই হউক কারো  ক্ষমা হবে না কারো প্রতি অবিচার হবে না।

 

প্রশ্নঃ আপনাকে যদি মনোনয়ন দেওয়া না হয় তখন কি একই ভাবে প্রচার করে যাবেন ?

উত্তরঃ দেখুন আমি আগেই বলেছি আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈ্নিক তাই আদর্শের জায়গা থেকে কাজ করে যাচ্ছি মনোনয়ন না দিলেও দলের ও সরকারের উন্নয়নের প্রচার করে যাবো এবং নির্বাচিত হলে যা করতাম মনোনয়ন না পেলেও তাহা করার চেস্টা করে যাবো। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু ।

জনতার নিউজেরক্ষ থেকে আপনার জন্য শুভ কামনা রইল

শেয়ার করুন
  • 30
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here