আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, ২০১৪ সালে মধ্য জানুয়ারির মধ্যে নতুন সরকার পাবে দেশ। বিরোধী দল বিএনপির ওপর নির্ভর করছে জাতীয় পার্টি মহাজোট থাকবে কি থাকবে না। কারণ বিএনপি নির্বাচনে না এলে জাতীয় পার্টি মহাজোট থেকে বেরিয়ে বিরোধী দল হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবে। আজ রোববার রাতে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী।
এর আগে সন্ধ্যায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মধ্যে একটি বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে এসব কথা বলেন আশরাফ।
সৈয়দ আশরাফ আরও বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধান হবেন শেখ হাসিনা। এ বিষয়ে কোনো ছাড় নেই। তবে প্রধানমন্ত্রী চাইলে অন্য কিছু হতে পারে। এটা সস্পূর্ণ নির্ভর করছে প্রধানমন্ত্রীর ওপর। সৈয়দ আশরাফ আশা প্রকাশ করেন, বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবে ইতিবাচক সাড়া দেবে। যদি তারা নির্বাচনে না আসেন তাহলে জাতীয় পার্টিকে সঙ্গে নিয়েই নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠন করা হবে। নির্বাচনে যাবে জাতীয় পার্টি।
এদিকে এ সময় জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার সাংবাদিকদের বলেন, সব দলের অংশগ্রহণে মন্ত্রীসভা কিভাবে হবে সে বিষয়ে আজকের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।

নির্বাচনকালীন মন্ত্রীসভায় আপনারা কোনো সাংসদের নাম দিয়েছেন কি-না—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে রহুল আমিন হাওলাদার বলেন, বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।দলে আলোচনার পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

জাতীয় পার্টি একা নির্বাচনে অংশ নেবে কী না—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে জাতীয় পার্টির মহাসচিব বলেন, আমরা আগেই বলেছি, আমরা মহাজোটে থেকেই অথবা মহাজোটের বাইরে থেকে একা নির্বাচন করব।তবে পরিস্থিতি বলে দেবে আমরা একা নির্বাচন করব কি-না।আজকের প্রেক্ষাপটে আমরা একা নির্বাচন করার বিষয়ে আলোচনা করেছি।

গত শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়ে তাতে বিরোধী দলের সদস্যদের নাম আহ্বান করেন। পরদিন এক প্রতিক্রিয়ায় জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে জানানো হয়, সর্বদলীয় সরকার গঠনের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাব ‘স্পষ্ট’ হয়নি। এরপর আজ সন্ধ্যায় গণভবনে আলোচনায় বসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ।

বৈঠকে এরশাদের সঙ্গে ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর আহমেদ, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, জি এম কাদের, কাজী ফিরোজ রশীদসহ প্রমুখ নেতা।

বৈঠকে আওয়ামী লীগের পক্ষে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, মতিয়া চৌধুরী, ওবায়দুল কাদের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।Ashraful

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here