khaleda

জনতার নিউজ প্রতিবেদনঃ-

সারাদেশে বি,এন,পি জামাতের অবৈধ ও অসাংবিধানিক কার্য্যক্রমের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ বেগবান করেছে সাধারন জনগন। অবৈধ আন্দোলন, জনগনের জান মালের ক্ষতিসাধন, মানুষ হত্যা সহ দেশে সন্ত্রাসী কার্য্যক্রমের কারনে বি,এন,পি জামাতের নেতারা জনগনের রোষানলে পড়েছে, বহুস্থানে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে বি,এন,পি জামাতের দলীয় অফিস। বহুস্থানে বি,এন,পি নেতা কর্মিদের আক্রমণ করেছে সাধারন জনতা। বহু বি,এন,পি নেতা ট্রাভেল এজেন্সিতে ধরনা দিচ্ছেন উচ্চ মূল্যে টিকেট কিনতে। জেলা উপজেলায় বি,এন,পি নেতাদের ঘরে হামলা শুরুর করেছে সাধারন জনতা । গোয়েন্দা সূত্র জানিয়েছে বেগম খালেদা জিয়া তার পরিবারের সদস্যদের বাংলাদেশ ত্যাগ এবং যারা বাইরে আছে তাদের আপাতত দেশে ফেরত না আসতে নির্দেশ দিয়েছেন কারন সময় ও সুযোগ বুঝে বেগম খালেদা জিয়া তার কিছু সংগি সাথি সহ দেশ ত্যাগ করার পরিকল্পনা করেছেন।

বাবু গয়েশ্বর রায় ও মির্জা ফকরুল ইসলাম গ্রেফতার হওয়ার পরে অনেক তথ্য গোয়েন্দাদের কাছে ফাঁস করে দিয়েছেন, বি,এন,পির একটা বড় অংশ চাচ্ছেন খালেদা-তারেক বিহীন বি,এন,পি আর এই ষড়যন্তের সাথে জড়িত সয়ং ফকরুল ইসলাম, গয়েশ্বর, সাদেক হোসেন খোকা সহ অনেকে এরা আবার জামাতের গোপন কিলিং মিশনের সাথে জড়িত কারন বি,এন,পির একটা বিরাট অংশ চাচ্ছেন যে বেগম খালেদা জিয়া যেহেতু বয়সের কারনে দল পরিচালনা করতে পারছেন না আর তারেক জিয়ার রাজনীতি সম্পর্কে জ্ঞান না থাকায় উলটা পালটা বক্তব্য দিয়ে দলকে অনেক ক্ষতি গ্রস্থ করেছেন তাই বেগম খালেদা জিয়াকে জামাতের গোপন মিশনের মাধ্যমে হত্যা করতে পারলে দুইটা কাজ এক সাথে হয়ে যাবে এক খালেদাকে হত্যার দায় পড়বে সরকারে উপর আর দেশে শুরু হবে অরাজকতা যার জন্য সরকার পড়বেন বিপদে এই সুযোগে দেশে সরকার নির্বাচন দিতে বাধ্য হবেন এবং বি,এন,পি হবেন তারেক খালেদা মুক্ত, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান এই সব তথ্য জানার পরে সির্দ্ধান্ত গ্রহন করেন যে বেগম খালেদা জিয়া যেন লন্ডনে চলে যায় আর খালেদা জিয়াও অনেকটা হতাশ হয়ে নিজেই রাজি হয়ে যান দেশ ত্যাগ করতে কারন কোন আন্দোলনের সময় তার পাশে কোন নেতা কর্মি থাকেন না, তাই তিনি বুঝতে পেরেছেন যে আন্দোলন করে এই সরকারের পতন ঘটানো সম্ভব না উলটা দুর্নীতির দায়ে জেলে গেলে তার পাশে কোন নেতা কর্মি থাকবেন না। বর্তমানে তিনি তার জীবন বাঁচাতে সরকারের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন সে মোতাবেক সরকার ও তাকে নিরাপর্তা দিয়েছেন কিন্ত জামাতের কিলিং মিশন তার পিছু ছাড়ছে না, যে কারনে তিনি চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাকী জীবন লন্ডনে ছেলের সাথে কাটাবেন।

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের কমপক্ষে ১৫০টি স্থানে জনতা বি,এন,পি অফিস ভাংচুর ও পুড়িয়ে দিয়েছে। বি,এন,পির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রুহুল কবির রিজবীর গ্রামের বাড়িতে আগুন দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। ঢাকায় যুবদলের চেয়ারম্যান সহ বেগম খালেদার অনেক নেতা ও আত্মীয়সজনের বাসায় জনতা হামলা করতে গিয়েছিল কিন্ত পুলিশের কারনে এই যাত্রা তারা বেঁচে গেলেন।

এদিকে জানা গেছে বিক্ষুব্ধ জনতার কয়েক হাজার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র টিম বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার বি,এন,পি নেতাদের ঘরে ঘরে হামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ খবরে বি,এন,পি-জামাত মহলে আতংক শুরু হয়েছে কারণ এত নেতাদের নিরাপত্তা দেয়ার মত পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করা সম্ভব নয় বলে সরকার ইতি মধ্য জানিয়ে দিয়েছেন, বেগম খালেদা জিয়ার নিরাপর্তার ব্যবস্তা করা হয়েছে গোয়েন্দা সুত্রঃ জানিয়েছেন যে জামাতের গোপন কিলিং গ্রুপ যে কোন মূল্যে বেগম খালেদা জিয়া সহ বি,এন,পির বেশ কিছু বড় বড় নেতাকে হত্যা করে দেশে অরাজকতা সৃষ্ট্রি করে যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে এবং তাদের ফাঁসি রহিত করতে যে কোন মূল্যে বি,এন,পি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া কে হত্যা করতে গোপন মিশন চালিয়ে যাচ্ছেন।

বি,এন,পির একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পর্ণ সূত্র জানিয়েছে অনেক মানসিকভাবে দুর্বল বি,এন,পি নেতারা ইতিমধ্যেই মালয়েশীয়াসহ অন্যত্র পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। ট্রাভেল এজেন্সীগুলোতে বিমান ও অন্যান্য এয়ার লাইন্সে টিকেট কেনার ধুম পরেছে।

বেগম খালেদা জিয়া যে কোন পরিস্থিতিতে দেশ ত্যাগ করার পরিকল্পনা করেছেন । লন্ডনে তারেক রহমানও বলেছেন বি,এনপির নেতাদের বিশ্বাস না করে তাদের কথায় বিভ্রান্ত না হয়ে যে কোন উপায়ে লন্ডনে চলে যেতে এবং যে পর্যন্ত তাদের মামলা শেষ না হবে সে পর্যন্ত তারা দেশে ফিরবেন না তবে বি,এনপির তৃনমূলের নেতা কর্মীকে তিনি আহবান জানিয়েছেন যে তাদের এই বিপদের মুহুর্তে তারা যেন দল কে বাঁচিয়ে রাখেন। অন্যদিগে বি,এন,পির অনেক নেতা মনে করেন বেগম খালেদা জিয়া দলের নেতাদের মূল্যায়ন না করে রাজনীতিতে অজ্ঞ তার ছেলে তারেক রহমানের নির্দেশনা মতে দল পরিচালনা করতে গিয়ে এবং তারেক রহমানের বালক সূলভ আচরনের কারনে দলে ও দলের নেতা কর্মিদের অনেক ক্ষতি করেছেন যা কোন অবস্থাতেই পূরণ করা সম্ভব নয়।

শেয়ার করুন

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here