pic-03_57910‘প্রথম রাষ্ট্রপতি’ বিতর্কের মধ্যে বন্ধ করে দেওয়া হলো বিএনপির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ৷শুক্রবার পর্যন্ত ওই সাইটে প্রবেশ করা গেলেও এখন যাচ্ছে না ৷তবে বিএনপির দাবি, কারিগরি ত্রুটির কারণে সাইটটি দেখা যাচ্ছে না ৷
বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া ও তার আগে তারেক রহমানের কণ্ঠে জিয়াউর রহমানকে প্রথম রাষ্ট্রপতি দাবি করা হয় ৷গত মঙ্গলবার প্রথম দাবিটি করেন জিয়াউর রহমানের বড় ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ৷
এর একদিন পর তারেক রহমানের মা বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াও একই দাবি করেন ৷বিএনপির অনেক নেতা এই বক্তব্যের পক্ষে যুক্তিও দেওয়ার চেষ্টা করেন ৷কিন্তু তারা যখন এই দাবি করছেন তখনো বিএনপির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে (https://bangladeshnationalistparty-bnp.org) দেখা যায় জিয়াউর রহমান সপ্তম রাষ্ট্রপতি?
এ নিয়ে বাংলাদেশের গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগের সাইটগুলোতে ঝড় উঠে ৷এর একদিন পরই বিএনপির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি বন্ধ করে দেওয়া হয় ৷শুক্রবারও ওয়েবসাইটটি দেখা গেছে ৷
কিন্তু শনিবার থেকে আর সেটা দেখা যাচ্ছে না ৷বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিতর্ক এড়াতে সাইটটি বন্ধ করে রাখা হয়েছে ৷তবে তাদের অফিসিয়াল ভাষ্য, কারিগরি ত্রুটির কারণে সাইটটি দেখা যাচ্ছে না ৷ঠিক করার কাজ চলছে, শেষ হলে আবার দেখা যাবে ৷এ নিয়ে বিতর্কের কোনো সুযোগ নেই বলেও দাবি তাদের ৷
গত মঙ্গলবার লন্ডনে এক অনুষ্ঠানে তারেক রহমান দাবি করেন, তাঁর বাবা জিয়াউর রহমান ছিলেন বাংলাদেশের ‘প্রথম’ রাষ্ট্রপতি ও ‘স্বাধীনতার ঘোষক’৷ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে এ দাবির সমালোচনার মধ্যেই বৃহস্পতিবার রাজধানীতে একটি অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া বলেন, তাঁর স্বামীই ছিলেন দেশের ‘প্রথম’ রাষ্ট্রপতি ৷
ওই দিনও বিএনপির ওয়েবসাইটে ঢুকে দেখা গেছে, সেখানে বলা হয়েছে, ‘১৯৭৮ সালে বাংলাদেশের সপ্তম রাষ্ট্রপতি মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমান দ্বারা প্রতিষ্ঠিত দলটি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম শক্তিশালী দল।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here