প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে পর্যায়ক্রমে এমসিকিউ (বহুনির্বাচনী প্রশ্ন) তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী। আজ সোমবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

কাজী কেরামত আলী বলেন, ‘এমসিকিউ প্রশ্ন পর্যায়ক্রমে তুলে দেওয়া হবে। তাহলে প্রশ্ন ফাঁসের সুযোগ থাকবে না।’ তিনি আরও বলেন, একটি চক্র প্রশ্ন ফাঁস করে সরকারকে বিব্রত করার চেষ্টা করছে। এরই মধ্যে তাদের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে মোবাইল ফোনও নিষিদ্ধ করেছে সরকার। ওই এলাকার মধ্যে কারও হাতে মোবাইল পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিকভাবে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

এর আগে প্রশ্নপত্র ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিলে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়াসহ আরও বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাতেও প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ হয়নি। বরং ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই পরীক্ষার সাতটি বিষয়ের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে। সর্বশেষ গত রোববার পরীক্ষার দিন আড়াই ঘণ্টা ইন্টারনেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অবশ্য আজ সকালে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে সরকার।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here