atiur rahmanবাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, প্রযুক্তির সাথে মূলধন যুক্ত হলে উত্পাদনশীলতা বৃদ্ধি পায়। এ জন্য প্রয়োজন উদ্যোক্তার ইচ্ছা শক্তি ও রাষ্ট্রীয় নীতি সহায়তা। তিনি  কাল রাজধানীর কাকরাইলে আইডিইবি ভবনে বাংলাদেশ ব্যাংকের সহায়তায় ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এবং আইডিইবি’র মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় ৫ শতাধিক উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে নিবন্ধিত সদস্য প্রকৌশলীদের দুই দিন ব্যাপী উদ্যোক্তা উন্নয়ন কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
আইডিইবি’র সভাপতি এ কে এম এ হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিটিভি’র মহাপরিচালক ম. হামিদ ও ডিসিসিআই’র এন্টারপ্রেনিউরশীপ এণ্ড ইনোভেশন এক্সপো’র চেয়ারম্যান মো. সবুর খান।
ড. আতিউর বলেন, প্রযুক্তিকে সামনে রেখে এগুতে চাইলে সকলের মাঝে প্রযুক্তির সুফল পৌঁছে দিতে হবে। প্রযুক্তির আর্শিবাদ কোনভাবে মুষ্টিমেয় মানুষের উন্নয়নের হাতিয়ারে পরিণত হতে দেওয়া যাবে না।
তিনি বলেন, জনশক্তি আমাদের জন্য আশীর্বাদ। প্রযুক্তি নির্ভর উদ্যোগ ও সুযোগ জনশক্তি ব্যবহার করে কাজে লাগাতে পারলে বাংলাদেশকে নিয়ে বিশ্বব্যাপী যে অমিত সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে, সকল প্রতিকূলতা ডিঙ্গিয়ে আমরা সমৃদ্ধ জাতিতে পরিণত হত পারবো। তবে এর জন্য অর্থলগ্নী ও উদ্যোক্তা সৃষ্টি প্রতিষ্ঠানের সাথে উদ্যোক্তাদের সেতুবন্ধন তৈরি করতে হবে।
ড. আতিউর রহমান বলেন, প্রতিবছর ২০ লাখ কর্মক্ষম মানুষের কর্মবাজারে প্রবেশকে সমষ্টি চেতনার মাধ্যমে কাজে লাগাতে বাংলাদেশ ব্যাংক নানামুখী প্রকল্প গ্রহণ করছে। ডিসিসিআই’র ২০০০ উদ্যোক্তা সৃষ্টির প্রকল্পকে এগিয়ে নেয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক আর একশত কোটি টাকার তহবিল পুনঃঅর্থায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
ম. হামিদ বলেন, আইডিইবি’র এ কর্মশালার মাধ্যমে আমাদের পশ্চাত্পদ চিন্তা থেকে অগ্রসর হওয়ার পথ দেখাবে। শ্রমবাজারে প্রবেশমুখী দক্ষ জনশক্তির কর্মসংস্থানের জন্য বিদ্যমান সুযোগ সুবিধা কাজে লাগিয়ে দক্ষ জনশক্তিকে উদ্যোক্তার ভূমিকায় এগিয়ে আসতে হবে।

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here